পাংশায় গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ২:০৭ অপরাহ্ণ ,৯ নভেম্বর, ২০১৪ | আপডেট: ২:০৭ অপরাহ্ণ ,৯ নভেম্বর, ২০১৪
পিকচার

মোক্তার হোসেন : পাংশা উপজেলার বাবুপাড়া ইউপির সুজানগর গ্রামে গতকাল শনিবার সকালে ফুলমতি (২০) নামের এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। তবে নির্যাতনের কারণে ফুলমতির মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন নিহতের পিতামাতা। অপরদিকে এ ঘটনার পর ফুলমতির স্বামী বকুল প্রামানিক বাড়ি থেকে গাঢাকা দিয়েছেন। পাংশা থানা পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্ণয়ে ময়না তদন্তের জন্য লাশ রাজবাড়ী মর্গে পাঠিয়েছে।

জানা গেছে, সুজানগর গ্রামের খয়বর প্রামানিকের ছেলে বকুল প্রামানিকের সাথে একই গ্রামের কোরবান আলীর মেয়ে ফুলমতির প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে দুই বছর আগে বিয়ে হয়। ছেলের পরিবার স্বাভাবিক ভাবে পুত্রবধূকে মেনে নিতে আপত্তি জানালেও ছেলেকে পরিবার থেকে আলাদা করে দিয়ে সুজানগর মধ্যপাড়া এলাকায় তাদের বসবাসের ব্যবস্থা করে দেন। গত দুই মাস যাবত সুজানগর মধ্যপাড়া এলাকায় ছাপড়া ঘর তুলে সেখানেই স্ত্রী ফুলমতিকে নিয়ে বসবাস করতে থাকেন বকুল প্রামানিক। এরই মধ্যে ৩/৪ মাস আগে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সাথে বকুল প্রামানিকের গোলযোগ বাধে। বিরোধটি আদালত পর্যন্ত গড়ায়। স্থানীয় ভাবে গোলযোগের মীমাংসা হলেও বকুল প্রামানিক ও ফুলমতির দাম্পত্য জীবনে অশান্তি দূর হয়নি। এক পর্যায়ে গত শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বকুল প্রামানিকের বাড়িতে ফুলমতির অস্বাভাবিক মৃত্যু হলে তাকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে বলে সরসরি অভিযোগ উত্থাপন করেন নিহতের পিতা কোরবান আলী।

এদিকে, খবর পেয়ে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পাংশা থানার ওসি মোহাম্মদ আবুল বাশার মিয়ার নেতৃত্বে এস.আই আবু সায়েম ও এস.আই হাসিনা বেগমসহ সঙ্গীয় পুলিশ দল ঘটনাস্থলে পৌঁছেন। তারা ঘটনার বিষয়ে তদন্ত করেন। এস.আই হাসিনা বেগম নিহতের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করেন। এ ঘটনার পর ফুলমতির স্বামী বকুল প্রামানিক এলাকা থেকে গাঢাকা দিয়েছে।মৃত ফুলমতি এক সন্তানের জননী ছিলেন।

 

 

আপডেট : রবিবার নভেম্বর ০৯,২০১৪/ ‌০২:০৪ পিএম/ আশিক

 

 

 


এই নিউজটি 1050 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments