,

সর্বশেষ :
গোয়ালন্দে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় যুবককে পিটিয়ে হত্যা রাজবাড়ীর কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী আমিন হুজুর এবার ইয়াবাসহ আটক রাজবাড়ীতে পুলিশের বাঁধায় ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল পন্ড নতুন সেনাপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আজিজ আহমেদের বর্ণিল ক্যারিয়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা ও গুণীজন সংবর্ধনা : আয়োজনে আনিসুর রহমান (আন্জু) স্মৃতি যুব সংঘ পাটুরিয়ায় ভোগান্তি, দৌলতদিয়ায় স্বস্তি রাজবাড়ীতে ভিজিএফের চাল চুরি করে ফেঁসে গেলেন ইউপি চেয়ারম্যান রাজবাড়ীতে অসহায় মানুষের মধ্যে ঈদবস্ত্র বিতরণ দৌলতদিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল রাজবাড়ীতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ ২ ডাকাত আটক

বিএনপির সমাবেশে যোগ দেওয়ায় গোয়ালন্দে বাড়িঘর ও দোকানে ‘আ.লীগের’ হামলা

News

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপির সমাবেশে যোগ দেয়ায় রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার বিষ্ণুপুর গ্রামে গত শনিবার রাতে নয়টি ঘরে হামলা ও একটি দোকানে লুটপাট করেছে আওয়ামীলীগের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা। এ ঘটনায় কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যরা জানান, গত ২২ নভেম্বর রাতে রাজবাড়ী জেলা বিএনপির কার্যালয়ে তারেক রহমানের ৫০তম জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা ও সমাবেশ শেষে গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর গ্রামের গফুর মোল্লার ভাতিজা রমেজ মোল্লা, মৃত বাবু শেখের ছেলে আরিফ শেখ ও আনোয়ার শেখের ছেলে রানা বাড়ি ফিরছিল। এ সময় তারা বাড়ির কাছে পৌঁছালে আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতা আলমের নেতৃত্বে ১৫ থেকে ২০ জন যুবক রমেজ মোল্লা, আরিফ শেখ ও রানার গতিরোধ করে রাজবাড়ী যাওয়ার কারণ জানতে চায়। এ সময় আলম ও তাঁর সহযোগীরা বিএনপির সভায় যোগদানের অভিযোগ তুলে রামেজ,আরিফ ও রানাকে কিল-ঘুষি মারে।

স্থানীয়রা জানায়, রমেজ,আরিফ ও রানা এলাকায় ফিরে উক্ত ঘটনা জানালে এলাকার লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। এ খবর পেয়ে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা আলমের নেতৃত্বে অর্ধশতাধিক যুবক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রাত নয়টার দিকে রমেজ,আরিফ ও রানার বাড়ীসহ ওই এলাকার অন্যান্য বাড়িঘরে হামলা চালায়। এ সময় ময়েছ শেখের তিনটি, গোলাপ আলীর দুটি, বাবু শেখের দুটি ও গফুর মোল্লার দুটি ঘরে ভাঙচুর করা হয়। এ ছাড়াও তারা স্থানীয় লুৎফর শেখের মুদির দোকানে ভাঙচুর চালিয়ে মালামাল লুট করে। হামলায় গুরুতর আহত অবস্থায় মানিক মোল্লা, রূপবান বেগম, রমিজ মোল্লা, সেলিম ও আনিসকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ছাড়া দুই নারীসহ আহত আরও ১০ জনকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ছোটভাকলা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আবদুল মজিদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান দাবি করেন, শনিবার বিকেলে জেলা বিএনপির সভায় যোগদান করার অপরাধে তাঁদের ওপর এ সন্ত্রাসী হামলা চালায় আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীরা।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শওকত হোসেন বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শনে হামলা ও ভাঙচুরের সত্যতা পাওয়া গেছে। তবে এ ঘটনায় কেউ থানায় অভিযোগ করেনি।

 

 

আপডেট : সোমবার নভেম্বর ২৪,২০১৪/ ০৬:৩৯ পিএম/ আশিক

 

 

 

 

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর