আলোচনার মাধ্যমে বাংলাদেশে দ্রুত আরেকটি নতুন নির্বাচন দেখতে চায় ইউরোপিয়ন কমিশন

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৪:৪৯ পূর্বাহ্ণ ,৪ ডিসেম্বর, ২০১৪ | আপডেট: ১১:৪৫ পূর্বাহ্ণ ,৪ ডিসেম্বর, ২০১৪
পিকচার

রাজবাড়ি  নিউজ ২৪.কম ::  জনগণের মৌলিক অধিকারের তোয়াক্কা না করে সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকার চিন্তায় মগ্ন থাকায় বাংলাদেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে না। দেশের স্বার্থে ও জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় যত দ্রুত সম্ভব আন্তরিক পরিবেশে আলোচনা করে সমঝোতার মাধ্যমে উভয় দলের আরেকটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আয়োজনে মতৈক্যে পৌঁছা উচিত। গ্রহণযোগ্য নির্বাচন না হলে সামনে বাংলাদেশের মানবাধিকার ও গনতন্ত্রে বিপর্যয় নেমে আসতে পারে। ইউরোপিয়ান কমিশন ইউকে এর নিজস্ব কার্যালয়ে ওভারসিজ স্টুডেন্ট অর্গানাইজেশন ‘বাংলাদেশী স্টুডেন্ট ইউনিয়ন ইউকে’র উদ্যোগে আয়োজিত ’বাংলাদেশের বর্তমান রাজনৈতিক ও মানবাধিকার পরিস্থিতি শীর্ষক সেমিনারে ইউরোপিয়ান কমিশন কর্মকতারা এসব মন্তব্য বলেন।

বুধবার সকালে আয়োজিত সেমিনারে ইউরোপিয়ন কমিশনের রাজনৈতিক কর্মকর্তা জায়ানা ক্রুস ছেলিং এর সভাপতিত্বে ও বাংলাদেশী স্টুডেন্ট ইউনিয়ন ইউকে’র চেয়ারপার্সন আতা উল্যাহ ফারুক এর সঞ্চালনায় সেমিনারে ইউরোপিয়ান কমিশনের হেড অব ডিভিশন পাওলা পামপালনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশের মানবাধীকার পরিস্থিতি এবং গনতান্ত্রীক অবস্থা খুবই নাজুক এবং হতাশাজনক । এছাড়া বর্তমান অবস্থা নিয়ে অসন্তোস প্রকাশ করেন তিনি আরো বলেন রাজনৈতিক দলগুলো নিজেদের মধ্যে সংলাপে বসে যত দ্রুত সম্ভব আরেকটি নতুন নির্বাচনের আয়োজন করা উচিত। যে সকল গুম,খুন,ক্রস ফায়ার,ও রাজনৈতিক নির্যাতন বাংলাদেশে চলছে সে গুলো যদি অচিরেই বন্ধ না হয়, অন্যথায় বর্তমার সরকার কে কঠিন সময় পার করতে হবে এবং বহিবিশ্বে এই বিষয় গুলো নিয়ে কঠিন নজরদারীতে থাকবে, যা কোন স্বাধীন দেশের জন্য সুখকর নয় বলেও জানান তিনি।

এসময় ইউরোপিয়ান কমিশনের পলিটিকাল অফিসার জোয়ানা ক্রুস ছেলিং বলেন, বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার একটি অপার সম্ভাবনাময় দেশ। বর্তমানে দেশটিতে গার্মেন্টস সেক্টর থেকে শুরু করে সব ব্যবসা প্রতিষ্টান গুলো দ্রুত প্রসার ঘটিয়ে অনেক খানি এগিয়ে গেছে,  বাংলাদেশকে জি. এস. পি সুবিধা পেতেও মানবাধিকার বিসয়্গুলো সঠিকভাবে মেনে চলতে হবে । বর্তমান সরকারের কাজ হবে কোন অরাজকতা সৃষ্টি না করে বিশ্বের সবদেশের সাথে তাল মিলিয়ে দেশ কে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া এবং একটি গনতান্ত্রীক দেশের জন্য গুম,খুন,কিডনাপিং কখনোও সুফল বয়ে আনতে পারেনা। তাই এমতাবস্তায় সরকার উচিত হবে সমস্ত দেশী এবং প্রবাসীদের নিরাপওা নিশ্চিত করা ।

বাংলাদেশী স্টুডেন্ট ইউনিয়ন’ ইউকে’র চেয়ারপার্সন আতাউল্যাহ ফারুক বললেন , শিক্ষা গ্রহণের উদ্দ্যেশে আমরা সুদূর প্রবাসে থাকলেও দেশের সঙ্কটে ভূমিকা রাখা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। বাংলাদেশে গণতন্ত্র ও মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য সকল রাজনৈতিক দলকে একসঙ্গে আলোচনায় বসা উচিত এবং দেশের জনগনের স্বার্থে যত সম্ভব মধ্যবর্তী নির্বাচন দেয়া যাতে আমরা সুন্দর শান্তিপূর্ণ স্থিতিশীল বাংলাদেশ পেতে পারি।

এ সময়  বাংলাদেশী স্টুডেন্টস ইউনিয়নের সিনিয়র জয়েন্ট কনভেনর এম. এ. খালেদ পাভেল  তার বক্তব্যে বর্তমান বাংলাদেশের চলমান রাজনৈতিক  পরিস্থিতি , একতরফা ও অগনত্রন্ত্রিক প্রক্রিয়ার ৫ ই জানুয়ারী ২০১৪  নির্বাচন, মানবাধিকার লঙ্ঘন , সাধারণ মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার  খর্বসহ প্রসাশন ও আইনশৃঙ্খলা  বাহিনীকে নিজস্ব সার্থে এই সরকারের অনৈতিক চর্চার কথা তুলে ধরে ইউরোপিয়ান  কমিশন সহ বিশ্বের অন্যান্য আন্তর্জাতিক  সংস্থাকে বাংলাদেশের গনতন্ত্র রক্ষায়  সাহায্যের আবেদন জানান , এ ছাড়া  বাংলাদেশী স্টুডেন্টস ইউনিয়ন ইউকে এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক এস এইচ সোহাগ তার বক্তব্যে দেশের সার্বিক মানবাধিকার অবস্থা সম্পর্কে অবগত করেন ।
সেমিনারে আরোও বক্তব্য রাখেন অ্যালেসআন্ডারা ভোটা, কেইলি গ্যালার,বাংলাদেশী স্টুডেন্টস ইউনিয়নের ফরহাদ হোসেন  আরো উপস্থিত ছিলেন  মাহমুদুল হাসান , ফাহিম আহমেদ , ইমাদ উদ্দিন  রানা , আতিকুর রহমান সহ অনন্য সদস্সো বৃন্দ।

  আপডেট : বুধবার , ডিসেম্বর ৩,২০১৪/ ১১:৩০ পিএম/ স্বপ্ন  


এই নিউজটি 1148 বার পড়া হয়েছে
[fbcomments"]

More News from বিশ্বজুড়ে