পাংশার কশবামাজাইলে গৃহবধূ ধর্ষণ মামলার আসামীরা গ্রেপ্তার হয়নি

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১:২১ অপরাহ্ণ ,২৬ ডিসেম্বর, ২০১৪ | আপডেট: ১:২৪ অপরাহ্ণ ,২৬ ডিসেম্বর, ২০১৪
পিকচার

মোক্তার হোসেন : রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কশবামাজাইল ইউপির বড় বাংলাট গ্রামে ঘটনার এক সপ্তাহ পার হলেও গৃহবধূ ধর্ষণ মামলার আসামীরা কেউ গ্রেপ্তার হয়নি ।

জানা গেছে, গত ১৭ ডিসেম্বর রাতে ধর্ষণের শিকার হয় ওই গৃহবধূ। অসুস্থ্য অবস্থায় ওই গৃহবধূকে প্রথমে পাংশা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরবর্তীতে পাংশা হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেল কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনে পাংশা থানা কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করেন। একপর্যায়ে পাংশা হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেল কর্তৃপক্ষ ভিকটিমকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে। সেখানে গত ২০ ডিসেম্বর ভিকটিমকে ভর্তি করা হয়। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভিকটিমের প্রয়োজনীয় পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়। ওই হাসপাতালে গিয়েই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আবুল কালাম মিয়া ভিকটিমের আলামত জব্দ করেন বলে জানা যায়।

এদিকে ভিকটিমের স্বামী জানায়, ঘটনার পর থেকেই আমরা অসহায় বোধ করছি। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় গত ২২ ডিসেম্বর তার স্ত্রীকে আসামী পক্ষের লোকজন চতুরতার আশ্রয় নিয়ে কৌশলে তার (স্বামীর) নামে ছাড়পত্র করিয়ে তার অসুস্থ্য স্ত্রীকে অজ্ঞাত স্থানে আত্মগোপনে রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ভিকটিমের স্বামী বাদি হয়ে বড় বাংলাট গ্রামের হালিম মন্ডলের ছেলে রান্নু, একই গ্রামের গফুর মন্ডলের ছেলে মুক্তি ও আক্কাস মন্ডলের ছেলে ইকবালকে আসামি করে পাংশা থানায় নারী ও শিশু নি