গোয়ালন্দে আওয়ামীলীগ নেতাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে পেটাল দুর্বৃত্তরা

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১০:০৯ অপরাহ্ণ ,৭ জানুয়ারি, ২০১৫ | আপডেট: ১০:১৪ অপরাহ্ণ ,৭ জানুয়ারি, ২০১৫
পিকচার

গোয়ালন্দ প্রতিনিধি : রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার উজানচর মকিমের মোড় এলাকায় আজ বুধবার দুপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা ইকলাছ মোল্লা ও তার ভাতিজা আলামীনকে গাছের সঙ্গে বেঁধে লোহার রড দিয়ে পেটিয়েছে একদল দুর্বৃত্ত। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গোয়ালন্দ উপজেলার হামিদ মৃধার হাট এলাকার কৃষক ইকলাছ মোল্লা (৪৪)। তিনি স্থানীয় দৌলতদিয়া ইউনিয়ন ৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। আজ বুধবার দুপুর ১২টার দিকে ইকলাছ তার নিজ বাড়ি থেকে মোটরসাইকেল চালিয়ে গোয়ালন্দ পৌর শহরের দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় তার ভাতিজা আলামীন মোল্লা (২২) ইকলাছের সঙ্গে ছিলেন। পথিমধ্যে মোকিমের মোড় এলাকায় তারা দুজনই পৌঁছানোমাত্র দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আতিয়ার, জব্বার, জিন্দার, মঞ্জিল, পাশান, আতাইসহ ১০-১২ জনের একদল দুর্বৃত্ত তাদের মোটরসাইকেলটির গতিরোধ করে। এ সময় দুর্বৃত্তরা ইকলাছ মোল্লা ও আলামীনকে জোর করে মোটরসাইকেল থেকে নামিয়ে দড়ি দিয়ে রাস্তার পাশে থাকা একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে ফেলে। এ সময় দুর্বৃত্তরা লোহার রড দিয়ে তাদের দুজনকেই বেদম পেটাতে থাকে। এতে দুর্বৃত্তদের রডের আঘাতে ইকলাছ মোল্লার মাথা ফেটে যায় এবং তার ভাতিজা আলামীনের মুখমন্ডলসহ সারা শরীর ক্ষতবিক্ষত হয়। পরে খবর পেয়ে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে দুর্বৃত্তরা দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে এলাকার লোকজন আহত চাচা-ভাতিজাকে উদ্ধার করে ভাতিজা আলামীনকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ও চাচা ইকলাছ মোল্লাকে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করে। আজ বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা করার প্রস্তুতি কাজ চলছিল।

এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে গোয়ালন্দঘাট থানার ওসি একেএম নাসির উল্লাহ বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এমন ঘটনাটি ঘটেছে। তবে দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ মাঠে নেমেছে।

 

আপডেট : বুধবার জানুয়ারী ৭,২০১৫/ ১০:০৮ পিএম/ আশিক


এই নিউজটি 983 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments