,

সর্বশেষ :
রাজবাড়ীতে ডিবির অভিযানে ইয়াবাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বসন্তপুর ইউনিয়নে বৃক্ষরোপণ ভূমি সেবায় অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন এসিল্যান্ড আরিফ অ্যাড. এম.এ. খালেকের স্মরণে রাজবাড়ী জেলা ইমাম কমিটির আলোচনা ও দোয়া মাহফিল পুলিশ ইন্সপেক্টর শহীদুলের সঠিক চার্জশিটে এগিয়ে যায় নারী চিকিৎসক ধর্ষণের ন্যায় বিচার রাজবাড়ীতে নারী চিকিৎসককে দলবদ্ধ ধর্ষণ : ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড রাজবাড়ী সদর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাড. এম.এ খালেকের দাফন সম্পন্ন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন রাজবাড়ী সদর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাড. এম.এ. খালেক রাজবাড়ীতে জমির নামজারি করার আশ্বাস দিয়ে টাকা আদায়, অবশেষে জরিমানা রাজবাড়ীতে ৭ লাখ টাকার হেরোইনসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী আটক

মালয়েশিয়ায় যাচ্ছেন না তারেক রহমান

News

ডেস্ক রিপোর্ট : অতি আদরের ছোট ভাই আরাফাত রহমান কোকোর আকষ্মিক মৃত্যুতে শোকে কাতর হয়ে পড়লেও তাকে শেষবারের মতো দেখার জন্য মালয়েশিয়া যাচ্ছেন না বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান। বর্তমানে তিনি লন্ডনে রাজনৈতিক আশ্রয়ে রয়েছেন।

এর আগে লন্ডনের বিএনপির একটি বিশ্বস্ত সূত্র জানিয়েছিলেন, ছোটভাইয়ের মরদেহ দেখতে শনিবারই মালেশিয়ার উদ্দেশ্যে লন্ডন ত্যাগের পরিকল্পনা করছেন তারেক রহমান।

অবশ্য তারেক রহমানের মালয়েশিয়া যাওয়ার খবরটির সত্যতা নিশ্চিত করতে পারেননি তারেকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ বিএনপির কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মহিদুর রহমান।

লন্ডন সময় সকাল ১১টায় এই প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি জানান, তারেক রহমান মালয়েশিয়া যাচ্ছেন কিনা, তা তিনি এখনও জানেন না।

তিনি বলেন, আমি রওয়ানা দিয়েছি তার বাসার দিকে। সেখানে গিয়ে জানার চেষ্টা করবো, তার (তারেক) পরিকল্পনার কথা।

মহিদ জানান, কোকোর মৃত্যু সংবাদ আসার পর তারেকের সঙ্গে এখন পর্যন্ত তার কথা হয়নি। তার (তারেক) বাসায় যাচ্ছেন বলে টেলিফোন আনসারিং মেশিনে তিনি মেসেজ রেখেছেন।

একই সময়ে তারেক রহমানের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার এম এ সালাম ও তারেকের মালয়েশিয়া যাওয়ার ব্যাপারে এখনও কিছু জানেন না বলে জানান। তিনি বলেন, আমিও রওয়ানা হয়েছি তার (তারেক) বাসার উদ্দেশ্যে।

এদিকে, তারেক রহমান মালয়েশিয়া যাচ্ছেন এ তথ্য প্রদানকারী যুক্তরাজ্য বিএনপির ওই সূত্র জানান, ভাই কোকোর মৃত্যু সংবাদ পাওয়ার পর তারেক শোকে কাতর হয়ে পড়েন। ভাইয়ের সঙ্গের বিভিন্ন স্মৃতি স্মরণ করে ক্ষণে ক্ষণে তারেক ঢুকরে কেঁদে উঠছেন।

সূত্র মতে, প্রথমে এই আকষ্মিক দুঃসংবাদটি পেয়ে কিছুক্ষণ কথাই বলতে পারেননি তারেক রহমান। এরপরই কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। স্ত্রী জোবায়দা রহমান তাকে শান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টার পাশাপাশি কোকোর মৃত্যুর কারণ জানতে মালয়েশিয়া কথা বলেন।

শোককাতর তারেককে ঢাকায় মা খালেদা জিয়ার সঙ্গেও প্রথম কথা বলিয়ে দেন জোবায়দা। এরপর কয়েকবারই মায়ের সঙ্গে কথা বলেন তারেক। যেহেতু দেশে যেতে পারবেন না, সেহেতু তারেককে মালেয়শিয়া গিয়েই ভাইকে শেষবারের মতো দেখার পরামর্শ দেন মা খালেদা জিয়া, এমনই জানায় ওই সূত্র।

সূত্রের দাবি, রোববার মালয়েশিয়া পৌঁছে সেখানে অনুষ্ঠিত কোকোর জানাজায় অংশ নেওয়া যায় কিনা সেটিই এখন চেষ্টা করছেন তারেকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যুক্তরাজ্য বিএনপির নেতারা। ( তথ্য সূত্র – বাংলা নিউজ টোয়েন্টিফোর ডট কম)

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর