শাবানার আর্তনাত পৌঁছায় না সরকারী বড় কর্তাদের কানে!

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১২:২১ অপরাহ্ণ ,২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ | আপডেট: ১২:২৯ অপরাহ্ণ ,২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫
পিকচার

শিহাবুর রহমান : চাঁদ ও তাঁরা যমজ দুই ভাই। বয়স ৭ বছর। চাঁদ বাক প্রতিবন্ধী। চাঁদ রাজবাড়ী প্রতিবন্ধী স্কুলে ও তাঁরা শিশু কল্যাণ স্কুলে পড়াশুনা করছে। জন্মের ৪০ দিনের মাথায় তাদের পিতা আবুল কালাম ৫০ টাকা কেজি দরে চাল কিনে সন্তানদের মানুষ করতে পারবেন না বলে তাদের ফেলে পালিয়ে গেছে। এরপর থেকেই তাদের মা শাবানা বেগম (৩৮) মানুষের বাড়িতে কাজ করে তাদের মানুষ করার দায়িত্ব নিয়েছে। তবে বর্তমানে শাবানা রাজবাড়ী বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ খুশি রেলওয়ে ময়দানে ৫দিনব্যাপী বই মেলায় পিঠা বিক্রি করছে। সেখানেই তার কাছ থেকে শোনা গেল জীবনের মর্মান্তিক কাহিনী।

শাবানার পিতার বাড়ী বালিয়াকান্দি উপজেলার হুলাইল গ্রামে। তারা ৩ বোন ও ৬ ভাই। দারিদ্রতার কারনে পড়াশুনা করা হয়নি। শাবানার বিয়ে হয় প্রায় ১৭/১৮ বছর আগে। মানিকগঞ্জে। তার স্বামীর নাম আবুল কালাম। পেশায় সে ছিল একজন রিক্সা চালক। নিজেদের থাকার জন্য একটু টুকরো জমিও তাদের ছিলনা। যে কারণে তাদের আশ্রয় হয় অন্যের বাড়ীতে। বিয়ের দু’এক বছরের মধ্যেই তাদের কোল জুড়ে আসে এক কন্যা সন্তান। নাম রাখা হয় শাহানা। শাহানার বয়স ৭/৮ বছর হলে তা