,

উদয়পুরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বসত বাড়ীতে হামলা : নগদ টাকা ও স্বর্নের চেইন ছিনতাই

News

স্টাফ রিপোর্টার : জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বসতঘরের টিনের বেড়া ও দরজা ভাংচুর এবং ২০ হাজার টাকা ও ৮ আনা ওজনের একটি স্বর্নের চেইন ছিনিয়ে নেয়াসহ হাশেম শিকদার (৭৫) নামের এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে আহত করেছে প্রতিপক্ষের ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা। গত ১৪ মার্চ সকালে রাজবাড়ী সদর উপজেলার বসন্তপুর ইউনিয়নের উদয়পুরে এ ঘটনা ঘটে। আহত হাশেম শিকদারকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় রাজবাড়ী থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে।

বসন্তপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আমিনুল হক মুকুল জানান, উদয়পুর গ্রামের মৃত মোহন শিকদারের ছেলে হাশেম শিকদার তার বাড়ীর পাশে ২০ শতাংশ নিজ দখলীয় জমি কাগজপত্রের বলে সীমানা নির্ধারনের জন্য ইউপি চেয়ারম্যান জাকির সরদারের কাছে প্রায় এক সপ্তাহ আগে একটি আবেদন করে। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে ৫দিন আগে গ্রাম পুলিশ মনোরঞ্জন মন্ডলের মাধ্যমে অভিযুক্ত একই গ্রামের মদন শিকদারের ছেলে খালেক শিকদার (৬৫), খিদির শিকদারের ছেলে তোফাজ্জেল শিকদার (৪০) ও মৃত রস্তম শিকদারের ছেলে রাজু শিকদার(২৬)কে গত ১৪ মার্চ সকালে ওই জমিতে হাজির থাকতে বলা হয়। গত ১৪ মার্চ সকালে উল্লেখিতরা ওই জমিতে না আসলে বসন্তপুর ইউনিয়নের নির্ধারিত আমিন অমর আলী কাজী দুইজন গ্রাম পুলিশ মনোরঞ্জন মন্ডল ও ফিরোজ মিয়ার সহযোগিতায় হাশেম শিকদারের জমির সীমানা নির্ধারন করে দেন। সকাল ১০টার দিকে সীমা নির্ধারনের কাজ শেষ হয়। এর কিছুক্ষণ পড়েই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সেক্রেটারী আঃ মান্নান মিয়াসহ ৬/৭টি মোটর সাইকেল হাশেম শিকদারের বাড়ীর সামনে এসে দাঁড়ায়। এ সময় ওই ৬/৭টি মোটর সাইকেল থেকে ১০/১২জন যুবক হাশেম শিকদারের বড় ভাই নজর আলী শিকদারের (৮৫) বসতবাড়ীতে হামলা করে টিনের বেড়া ধারালো অস্ত্র দিয়ে বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে তছনছ করে। এ সময় তারা ঘরের কাঠের দরজা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করে ট্রাংক থেকে ২০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়াসহ নজর আলী শিকদারের নাতী বউ স্বপ্নার (২৫) গলা থেকে ৮ আনা ওজনের স্বর্নের চেইন ছিনিয়ে নেয়। এছাড়াও তারা নজর আলী শিকদারের ছোট ভাই হাশেম শিকদারকে পেয়ে বেদমভাবে পিটিয়ে আহত করে। এ সময় ওই বাড়ীর লোকজনের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে তারা পালিয়ে যায়। এ ঘটনার পর আহত হাশেম শিকদারকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় ওই দিনই (গত ১৪মার্চ) আহতের ভাতিজা কুদ্দুস শিকদার বাদী হয়ে রাজবাড়ী থানায় একটি এজাহার দায়ের করে।

অপরদিকে তোফাজ্জেল শিকদার ও তার ভাই সিরাজ শিকদার এবং একই এলাকার বিশু শেখের ছেলের লুৎফর শেখের বিরুদ্ধে অন্য একটি মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানাজারী থাকায় গতকাল ১৫ মার্চ সন্ধ্যায় পুলিশ তাদেরকে গ্রেফতার করে।

 

 

আপডেট : সোমবার মার্চ ১৬,২০১৫/ ০৬:৪৯ পিএম/ স্বপ্ন

 

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর