,

যৌতুকের দাবীতে স্ত্রীকে তাড়িয়ে দেয়ায় স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

News

স্টাফ রিপোর্টার : দুই লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে বাড়ী থেকে স্ত্রীকে তাড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় রাজবাড়ীর আদালতে গত ২ এপ্রিল স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে শিউলী আক্তার নামের এক গৃহবধূ। আদালত আসামীর প্রতি সমনজারীর আদেশ দিয়েছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, রাজবাড়ী সদর উপজেলার দাদশী ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের মমিনুল ইসলামের মেয়ে শিউলী আক্তারের সাথে গত ২৮/৮/২০০৯ তারিখে গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানার ভাওয়াল গ্রামের বরকত আলী সেখের ছেলে মামুন হোসেন ওরফে দাউদের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় শিউলীর পরিবার মামুনকে উপহার হিসেবে ৫০ হাজার টাকার মালামাল প্রদান করে। বিয়ের কিছুদিনের মধ্যে নেশাখোর মামুন শ্বশর বাড়ী থেকে উপহার হিসেবে পাওয়া ৫০ হাজার টাকার মালামাল নষ্ট করে ফেলে এবং দুই লক্ষ টাকা যৌতুক এনে দেয়ার জন্য স্ত্রী শিউলীকে নির্যাতন শুরু করে। এক পর্যায়ে শিউলী গর্ভবর্তী হলে মামুন তাকে চাপ প্রয়োগ করে পেটের সন্তান নষ্ট করে ফেলতে বাধ্য করে। সম্প্রতি সে ২য় বিয়ে করার জন্য প্রচার করলে শিউলী বাধা দিলে মামুন তার কাছে পিতার বাড়ী থেকে ২লক্ষ টাকা এনে দেয়ার জন্য আবারো চাপ সৃষ্টি করে। এতে শিউলী অস্বীকার করলে মামুন নির্যাতন করে তাকে বাড়ী থেকে তাড়িয়ে দেয়। এ ঘটনার পর শিউলী তার পিতার বাড়ীতে এসে আশ্রয় নেয়। গত ২৭ মার্চ মামুন শিউলীর পিতার বাড়ীতে আসলে শ্বশুর বাড়ীর লোকজন তাকে আপ্যায়ন করে। এরপর সে মালোয়েশিয়া যাওয়ার জন্য শ্বশুর বাড়ীর লোকজনের কাছে ২লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে। আর এ টাকা না দিলে সে শিউলীকে তার সংসারে ফিরিয়ে নেবে না বলে প্রকাশ করে। তার দাবী পুরন করতে ব্যর্থ হওয়ায় সে শিউলীকে সংসারে ফিরিয়ে নেবে না বলে শ্বশুর বাড়ীতে রেখে চলে যায়।

এ ঘটনায় শিউলী গত ২ এপ্রিল স্বামী মামুনকে আসামী করে যৌতুক নিরোধ আইনের ৪ধারায় মামলা করলে আদালত আসামীর প্রতি সমন জারী করেন।

 

আপডেট : মঙ্গলবার এপ্রিল ৭,২০১৫/ ০২:৪৫ পিএম/ আশিক

 

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর