নিখোঁজের দুই বছরেও সন্ধান মেলেনি কলেজ ছাত্র নাসিরের

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১:২৬ অপরাহ্ণ ,২৭ এপ্রিল, ২০১৫ | আপডেট: ১:৩৪ অপরাহ্ণ ,২৭ এপ্রিল, ২০১৫
পিকচার

মোক্তার হোসেন : নিখোঁজ হওয়ার দুই বছর পেরিয়ে গেলেও সন্ধান মেলেনি পাংশা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউপির বলরামপুর গ্রামের শওকত আলী প্রামানিকের ছেলে, হাবাসপুর ড.কাজী মোতাহার হোসেন কলেজের ছাত্র নাসির প্রামানিকের। বিগত ২০১৩ সালের ২৬ এপ্রিল সন্ধ্যার পরে নিজ বাড়ির সামনে থেকে নিখোঁজ হয় সে।

নিখোঁজ কলেজ ছাত্র নাসির প্রামানিকের বড়ভাই হায়দুল প্রামানিক জানান, ছাত্রলীগ কর্মী নাসির প্রামানিক হাবাসপুর ড. কাজী মোতাহার হোসেন কলেজের ছাত্র ছিল। ২০১৩ সালে তার এইচএসসি পরীক্ষা চলছিল। ২৬ এপ্রিল-১৩ সন্ধ্যা আনুমানিক ৭টার দিকে প্রতিবেশী গজারিয়া গ্রামের শ্রী জয়দেব কুমার বিশ্বাস ওরফে পোকাই বিশ্বাসের ছেলে জয়ন্ত কুমার বিশ্বাস নাসির প্রামানিককে বাড়ির সামনে রাস্তা হতে নাসির প্রামানিককে ডেকে নিয়ে বাহাদুরপুর সেনগ্রাম পাকা রাস্তার দিকে নিয়ে যায়। তার পর থেকেই নাসির প্রামানিক নিখোঁজ এবং নাসিরের ব্যবহৃত ০১৭২৩-৬৬১২৫১ মোবাইল ফোন বন্ধ।

এ ঘটনায় হায়দুল প্রামানিক প্রথমে পাংশা থানায় জিডি দায়ের করেন। জিডি নং ৯৬০, তারিখ ২৭/৪/২০১৩। পরবর্তীতে জয়ন্ত কুমার বিশ্বাসকে এজাহার নামীয় আসামীসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৭/৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং ৮, তারিখ ৩৬৫/৩৪ দ.বি.। ঘটনার পর থেকেই আসামী জয়ন্ত কুমার বিশ্বাস পলাতক রয়েছে।

বাহাদুরপুর তদন্ত কেন্দ্রের তৎকালীন আইসি শ্রী নিত্যরঞ্জন মৌলিক প্রথমে এ মামলাটি তদন্ত করেন। বর্তমানে এ মামলাটি রাজবাড়ী ডিবি’র ওসি মো. মিজানুর রহমান তদন্ত করছেন। তিনি জানান, এ মামলার সন্দিগ্ধ আসামী বিল গজারিয়া গ্রামের রবিউল ইসলাম, বলরামপুর গ্রামের ইসলাম প্রামানিক, চরপাড়ার নুরাই ও জয়দেব কুমার বিশ্বাসকে গ্রেফতার করা হয়। তারা সকলেই জামিনে রয়েছে। তিনি আরো জানান, ভিকটিম নাসির প্রামানিকের সন্ধান উদঘাটন ও এজাহার নামীয় পলাতক আসামী জয়ন্ত কুমার বিশ্বাসসহ জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতারে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

আপডেট : সোমবার এপ্রিল ২৭,২০১৫/ ০১:১০ পিএম/ আশিক


এই নিউজটি 679 বার পড়া হয়েছে
[fbcomments"]