দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে চলন্ত ফেরিতে সক্রিয় জুয়াড়ি দল

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৪:২০ অপরাহ্ণ ,১৮ মে, ২০১৫ | আপডেট: ৪:২০ অপরাহ্ণ ,১৮ মে, ২০১৫
পিকচার

গোয়ালন্দ প্রতিনিধি : দেশের ব্যস্ততম দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে চলন্ত ফেরিতে সংঘবদ্ধ একদল দুর্বৃত্ত রাতের আঁধারে জুয়ার ফাঁদ বসিয়ে যাত্রীদের কাছ থেকে টাকা, স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোনসেটসহ মূল্যবান জিনিসপত্র হাতিয়ে নিচ্ছে। পাশাপাশি সক্রিয় হয়ে উঠেছে ছিনতাইকারী চক্রও।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থার (বিআইডাব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া ঘাট অফিস সূত্রে জানা যায়, দৌলতদিয়া থেকে পাটুরিয়া ঘাটের দূরত্ব মাত্র তিন কিলোমিটার। প্রতিদিন ওই নৌপথ দিয়ে হাজার হাজার যাত্রীসহ শত শত বিভিন্ন গাড়ি ফেরিতে করে নদী পারাপার হয়। যাত্রী ও মালামালের নিরাপত্তায় চলাচলকারী ফেরিগুলোতে সার্বক্ষণিক পুলিশি পাহারা থাকার কথা থাকলেও বেশ কিছুদিন ধরে তা শিথিল দেখা যাচ্ছে। এ সুযোগে সংঘবদ্ধ একদল দুর্বৃত্ত সক্রিয় হয়ে উঠেছে। তারা রাতের আঁধারে ট্রলার নিয়ে এসে চলন্ত ফেরিতে তিন তাসের নামে জুয়ার আসর বসায়। ফেরিতে প্রথমে তারা তিন-চারজন মিলে জুয়া খেলা শুরু করে। এ সময় সঙ্গী জুয়াড়িরা যাত্রীবেশে বিভিন্ন নৈশকোচের সাধারণ যাত্রীদের খেলায় অংশ নিতে নানাভাবে প্রলুব্ধ করে। তাতে অনেকেই ওই ফাঁদে পা দিয়ে সর্বস্ব হারায়। পরে ফেরি ঘাটে ভেড়ার আগেই জুয়াড়ি দল ট্রলারে করে পালিয়ে যায়।
যশোরের স্থানীয় এক পত্রিকার সাংবাদিক তরিকুল ইসলাম মিঠু জানান, গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে সৌদিয়া পরিবহনে তিনি বেনাপোল থেকে চট্টগ্রাম যাচ্ছিলেন। পথে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথের ফেরিতে তিনি দুর্বৃত্তদের কবলে পড়ে তাঁর মূল্যবান ল্যাপটপ হারিয়েছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ফেরির মাস্টার জানান, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটের নৌপুলিশ ফাঁড়ি চলন্ত ফেরির নিরাপত্তা কাজে নিয়োজিত। তাদের তৎপরতায় গত কয়েক মাস ওই পথে ফেরিতে জুয়ার ফাঁদ, ছিনতাই ও পকেটমারের ঘটনা বন্ধ ছিল। তবে অজ্ঞাত কারণে এখন সেখানে পুলিশি তৎপরতা নেই বললেই চলে। এ সুযোগে জুয়া ও ছিনতাইকারী চক্র আবার সক্রিয় হয়ে উঠেছে।

ওই মাস্টার আরো জানান, জুয়ার নামে দুর্বৃত্তরা যাত্রীদের সর্বস্ব ছিনিয়ে নেয়। এ সময় কেউ বাধা দিতে গেলে দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাঁকে কুপিয়ে জখম করে। এ কারণে ভয়ে তাদের বিরুদ্ধে কেউ কথা বলার সাহস করে না। দৌলতদিয়া নৌপুলিশ ফাঁড়ি ও ঘাটসংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানায়, গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ঘাট এলাকার জুয়াসম্রাট মাদার কাজীর নেতৃত্বে জামাল, রব, সেন্টু, কুব্বাত, জহুর, হাসেম কাজী, মনেক্কা, সোনাই, এরশাদ, বাহা, মনোমুচি, ইয়াকুব, হাবু, হারানসহ স্থানীয় ২০-২৫ জনের একদল জুয়াড়ি রয়েছে। তারা প্রায় প্রতি রাতেই বিভিন্ন চলন্ত ফেরিতে জুয়ার আসর বসিয়ে থাকে। এর মধ্যে কয়েকজন পুলিশের হাতে গ্রেফতারর হওয়ায় তারা এখন জেলহাজতে রয়েছে।

 


এই নিউজটি 1017 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments