নববধূ কেয়াকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন!

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ২:৫৪ পূর্বাহ্ণ ,২৯ জুন, ২০১৫ | আপডেট: ৩:৩০ পূর্বাহ্ণ ,২৯ জুন, ২০১৫
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : মাত্র ৬মাস আগে রাজবাড়ী সদর উপজেলার লক্ষ্মীকোল গ্রামের হারুন খানের ছেলে পারভেজ খানের সাথে বিয়ে হয় কেয়া বেগমের (১৮)। হাতের মেহেদীর রঙও এখনো ভালোভাবে শুকায় নি। কিন্ত ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে বিয়ের পর রঙীন সংসার জীবন পাওয়া হলোনা কেয়ার। এরই মধ্যে মরণব্যাধী ক্যান্সার আক্রান্ত করে ফেলেছে তাকে । শরীরে দুরারোগ্য ব্লাড ক্যান্সার নিয়ে বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি । চিকিৎসক জানিয়েছেন সু-চিকিৎসার মাধ্যমে এখনো কেয়াকে সুস্থ্য করে তোলা সম্ভব। তবে এর জন্য প্রয়োজন ১৮/২০ লক্ষ টাকা।

এদিকে, কেয়ার স্বামী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একাউন্টিং (১৫ তম ব্যাচ) থেকে বিবিএ এমবিএ করে সদ্য বের হওয়া পারভেজ খানের চোঁখে এখন ঘোর অন্ধকার।

মৃত্যুর পথযাত্রী স্ত্রীর পাশে বসে পারভেজ খান জানান, চলতি বছরের ২৫জানুয়ারী রঙীন সংসার গড়ার স্বপ্ন নিয়ে রাজবাড়ী সরকারী কলেজের ম্যানেজমেন্ট এর ছাত্রী কেয়া বেগমকে বিয়ে করেন তিনি। কিন্তু তার স্বপ্ন এখন অধরা। বিয়ের পর থেকেই কেয়া অসুস্থ্যতা বোধ করতে থাকে। এক পর্যায়ে তাকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে মরণব্যাধী ব্লাড ক্যান্সার ধরা পড়ে। এর মধ্যে দিন দিন তার অবস্থার অবনতি হতে থাকলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এখনো সে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ২ এর ১১১ নং কেবিনের ১০ তলায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। চিকিৎসক জানিয়েছ