ফেরীর জাল টিকিট বিক্রির দায়ে ৩ জন গ্রেফতার

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১২:৫৯ পূর্বাহ্ণ ,৫ জুলাই, ২০১৫ | আপডেট: ৪:১০ পূর্বাহ্ণ ,৫ জুলাই, ২০১৫
পিকচার

রাজবাড়ী ডেস্ক : রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ঘাটে ফেরীতে ট্রাক পারাপার করার জাল টিকিট বিক্রির দায়ে ৩জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলো মানিকগঞ্জ জেলার শিবালয় থানার খৈলশাপট্টি গ্রামের খৈইমদ্দিন শেখের ছেলে শরিফুল ইসলাম (২৭), রাজবাড়ী সদর উপজেলার রামকান্তপুর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে হিরা (২৫) ও বড় লক্ষীপুর পুর গ্রামের মনির উদ্দিনের ছেলে টিক্কা (৩০)।

গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেল ৫ টার দিকে ঢাকা মেট্টো-ট-১৮-২২০৫ ট্রাকটি দৌলতদিয়া ৩ নং ফেরি ঘাট পন্টুন দিয়ে ফেরি এনায়েতপুরীতে উঠতে যায়। এ সময় কর্তব্যরত টিকিট চেকার ট্রাকের চালক মো. কুতুবউদ্দিনের (৪০) কাছে টিকিট চাইলে তিনি ৫২২৭/১৭ নং একটি টিকিট বের করে দেয়। টিকিটটি দেখে বিআইডব্লিউটিসি’র প্রান্তিক সহকারী মো. আসাদুল ইসলামের সন্দেহ হলে তিনি উক্ত টিকিট জাল বলে সনাক্ত করেন। চালক জিজ্ঞাসাবাদে জানায় দৌলতদিয়া বিআইডব্লিউটিসি’র টিকিট কাউন্টারের সামনে থেকে শরিফুল ইসলাম নামের এক দালাল তাকে ৩ হাজার টাকার বিনিময় এ টিকিট সরবরাহ করেছে। পরে শরিফুল ইসলামকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে জাল টিকিট সরবরাহের কথা স্বীকার করে। তার দেয়া তথ্যমতে শনিবার দুপুরে এ চক্রের অপর দুই সদস্য হিরা ও টিক্কাকে গ্রেফতার করা হয়।

এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি একেএম নাসির উল্যাহ জানান, মাত্র একটি টিকিটের মূল্য ৩ হাজার টাকা হওয়ায় এ চক্রটি ফেরির টিকিট জাল করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে আসছিল। এতে সরকার লক্ষ লক্ষ টাকা রাজস্ব আয় হারাচ্ছিল। আসামীদের বিরুদ্ধে বিআইডব্লিউটিসি’র দৌলতদিয়া অফিসের প্রান্তিক সহকারী আসাদুল ইসলাম বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছে বলে তিনি জানান।

(সংবাদ সৌজন্য – গোয়ালন্দ নিউজ)

 


এই নিউজটি 668 বার পড়া হয়েছে
[fbcomments"]