,

সর্বশেষ :
গোয়ালন্দে কমিটি দেয়ায় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদককে শোকজ রাজবাড়ীতে নতুন পুলিশ সুপার হিসেবে আসছেন আসমা সিদ্দিকা মিলি রাজবাড়ীর বসন্তপুরে তরুণী ধর্ষণকে কেন্দ্র করে পুলিশের তৎপরতা বৃদ্ধি রাজবাড়ীতে ৭ বখাটে মিলে গণর্ধষণ করে সেই তরুণীকে রাজবাড়ীতে তরুণীকে গণধর্ষণের চেষ্টা, আটক ৩ রাজবাড়ীতে সিগারেট না দেওয়ায় প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিতের অভিযোগ পাংশায় অজ্ঞাতপরিচয় যুবকের মরদেহ উদ্ধার রাজবাড়ীতে ৪ লাখ টাকার হেরোইনসহ নারী মাদক ব্যবসায়ী আটক রাজবাড়ীতে কাজী শান্তনু’র নেতৃত্বে ছাত্রলীগের মাতৃভাষা দিবস পালন শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানাতে এসে শ্লীলতাহানির শিকার স্কুলছাত্রী

ড.কাজী মোতাহার হোসেন কলেজে রাতের অন্ধকারে প্রতিষ্ঠাতার নামের ভিত্তি প্রস্তরের ফলক ভেঙ্গে নতুন ফলক স্থাপন!

News

স্টাফ রিপোর্টার : প্রতিষ্ঠার দীর্ঘ ২২বছর পর পাংশা উপজেলার হাবাসপুরে ড. কাজী মোতাহার হোসেন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ্ব শাহাবুদ্দিন আহমদের নামের ভিত্তি প্রস্তরের ফলকটি ভেঙে ফেলা হয়েছে। ন্যাক্কার ও নিন্দাজনক এ কাজ করা হয় গত ২রা জুলাই রাতের অন্ধকারে।

শুধু তাই নয় ফলকটি ভেঙে ফেলে মোহাম্মদ আবু হেনার নামে নতুন ফলক করা হয়েছে। এতে কলেজটির প্রতিষ্ঠাতার নাম থেকে আলহাজ্ব শাহাবুদ্দিন আহমদের নাম বাদ দেয়ার যে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে তা পরিস্কার হয়ে উঠেছে।

এদিকে ন্যাক্কার জনক এ ঘটনায় আলহাজ্ব শাহাবুদ্দিন আহমদ গত ৪ঠা জুলাই পাংশা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগে তিনি অবৈধভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত কলেজটির বর্তমান অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুল আজিজ, আব্দুল মালেক ও সভাপতি ড.মোঃ আব্দুল মাজেদের যোগসাজসে মোহাম্মদ আবু হেনাকে খুশি করার জন্য ঘটনাটি ঘটনো হয়েছে বলে দাবী করেছেন।

উল্লেখ্য, এ বিষয়ে গত ২রা জুলাই দৈনিক মাতৃকন্ঠে “গভর্নিং বডির বর্তমান সভাপতি ও অধ্যক্ষকে লিগ্যাল নোটিশ প্রদান॥পাংশা হাবাসপুরে প্রতিষ্ঠাতা দীর্ঘ ২২বছর পর ড.কাজী মোতাহার হোসেন কলেজ থেকে প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ্ব শাহাবুদ্দিনের নাম বাদ দেয়ার ষড়যন্ত্র চলছে” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। ওই সংবাদে পরিবেশিত ছবিতে ১৯৯৪ সালের ১৫ই মার্চ প্রতিষ্ঠাতার কর্তৃক ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও তার নামে ভবন উদ্বোধনের ফলকও ছাপা হয়। অথচ পত্রিকায় প্রকাশের দিনগত রাতেই আলহাজ্ব শাহাবুদ্দিন আহমদের নামের ভিত্তি প্রস্তরের ফলক ভেঙ্গে ফেলে সেখানে মোহাম্মদ আবু হেনার নামে নতুন ফলক প্রতিস্থাপন করা হয়েছে।

এরআগে বিষয়টি আঁচ করতে পেরে কলেজের প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ্ব শাহাবুদ্দিন আহমদ গত ২৮শে মে কলেজটির গর্ভনিং বডির বর্তমান সভাপতি ড. মোঃ আব্দুল মাজেদ এবং অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুল আজিজকে লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করেছেন।

ইতিমধ্যেই কলেজটির প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ্ব শাহাবুদ্দিন আহমদের নামে ভিত্তি প্রস্তরের ফলকটি রাতের অন্ধকারে ভেঙে ফেলায় তিনি হতভম্ব হয়ে পড়েছেন।

উপমহাদেশের প্রখ্যাত সাহিত্যিক ড.কাজী মোতাহার হোসেনের নামে প্রতিষ্ঠিত কলেজে এমন ন্যাক্কার জনক ঘটনায় সচেতন নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

 

আপডেট : সোমবার জুলাই ০৬,২০১৫/ ০৫:১০ পিএম/ আশিক

 

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর