অপহরণ নাকি প্রেমের টানে পলায়ন ?

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১:০৫ অপরাহ্ণ ,২৪ জুলাই, ২০১৫ | আপডেট: ১:৩৪ অপরাহ্ণ ,২৪ জুলাই, ২০১৫
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ী শহরের ১নং বেড়াডাঙ্গা এলাকার নবম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী অপহরণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে ৩জনের নামে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। এ মামলায় শাকিল নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এদিকে ঘটনাটি অপহরণ নাকি প্রেমের সম্পর্কের কারণে পালিয়ে যাওয়া এ নিয়ে এলাকায় চলছে নানা গুঞ্জন।

ওই ছাত্রীর পিতা রাজবাড়ী শহরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ীর অভিযোগ, তার মেয়ে (১৪) রাজবাড়ী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীতে পড়ে। স্কুলে যাওয়া-আসার পথে বেড়াডাঙ্গা গ্রামের কাদের প্রামানিকের ভাগনে আকাশ (১৮) তার মেয়েকে উত্ত্যক্ত করতো। গত শনিবার ঈদের দিন বিকেলে তার মেয়ে বাড়ী থেকে জেলা শহরের গোদার বাজার পদ্মা নদীর তীরে ভ্রমনের উদ্দেশ্যে বের হয়। এসময় সে ধুনচী গ্রামের জনৈক আবুল পাটোয়ারীর বাড়ীর সামনে পৌঁছলেই আকাশের নেতৃত্বে ১ নং বেড়াডাঙ্গা গ্রামের তোরাপ আলী সরদারের ছেলে শাকিল ও জেলা সদরের কোলারহাটের সুমনসহ অজ্ঞাত পরিচয়ের আরো ৩/৪ জন জোরপূর্বক তাকে একটি মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও রাজবাড়ী থানার এসআই ওহিদ মিয়া জানান, এ ঘটনার পরদিন রবিবার মামলার আসামী শাকিলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। একই সাথে মেয়েটিকে উদ্ধার এবং অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে বেড়াডাঙ্গা এলাকার একাধিক সূত্র জানিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে আকাশের সাথে ওই ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। প্রেমের সূত্র ধরেই ওই ছাত্রী স্ব-ইচ্ছায় আকাশের হাত ধরে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি দিয়েছে। কিন্তু ওই ছাত্রীর পিতা প্রভাবশালী হওয়ায় এ সম্পর্ক মেনে না নিয়ে মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানী করছে।

অপহরণ বা পালিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে ওই ছাত্রী এবং আকাশের সাথে ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাদের মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়।

 


এই নিউজটি 1171 বার পড়া হয়েছে
[fbcomments"]