পাংশায় উপজেলা চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১০:৫৫ অপরাহ্ণ ,২৭ জুলাই, ২০১৫ | আপডেট: ১০:৫৫ অপরাহ্ণ ,২৭ জুলাই, ২০১৫
পিকচার

পাংশা প্রতিনিধি : রাজবাড়ীর পাংশা শহরে দু’টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বোমা হামলা ও মামলার ঘটনায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন পাংশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক ফরিদ হাসান ওদুদ ।

সোমবার (২৭ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে উপজেলা পরিষদের নিজ কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।

উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরিদ হাসান ওদুদ সংবাদ সম্মেলনে দাবী করেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে তার সহোদর তিনভাই উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক, মাজবাড়ী অধ্যাপিকা জাহানারা বেগম কলেজের সহকারী অধ্যাপক সিদ্দিক মন্ডল, পাংশা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, পাংশা আইডিয়াল গার্লস কলেজের গভর্নিং বডির সদস্য, পাংশা উপজেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি ইদ্রীস আলী মন্ডল এবং পাংশা পৌর যুবলীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক, পুরাতন বাজার বণিক সমিতির সভাপতি ও পাংশা শাহজুঁই (রা.) মাজার কমিটির সভাপতি জাহাঙ্গীর মন্ডলকে বোমা হামলা ঘটনার মামলায় আসামী করা হয়েছে। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ঘটনার বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্তের দাবী জানান তিনি।

অধ্যাপক ফরিদ হাসান ওদুদ আরো বলেন, বোমা হামলা জামাত-শিবিরের কাজ। তারা এক সময়ে সারা দেশে বোমা হামলা চালিয়ে দেশের মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছে। দেশের উন্নয়নে বাধাগ্রস্ত করেছে। সে সময় আমরা রাজনৈতিকভাবে জামাত-শিবিরের ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করেছি। বিগত বিএনপি সরকার সময়ে বিরোধীদলে থাকাস্থায় আমরা হামলা-মামলার ও নির্যাতনের শিকার হয়েছি। বর্তমানে পাংশা শহরে দু’টি দোকানে বোমা হামলার ঘটনায় আওয়ামী লীগের শক্তিশালী ঘাঁটিতে বিরোধ ও বিভেদ সৃষ্টি করে স্বার্থান্বেষীমহল রাজনৈতিক সুবিধা হাসিলের উদ্দেশে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে এবং স্বার্থান্বেষী মহলের ইন্ধনেই বোমা হামলা মামলায় আওয়ামী লীগ রাজনৈতিক পরিবারের আমার তিন সহোদর সিদ্দিক মন্ডল, ইদ্রীস মন্ডল ও জাহাঙ্গীর মন্ডলকে আসামী করা হয়েছে। এটি হয়রানীমূলক। যা নিন্দনীয়। তিনি দৃঢ়তার সাথে দাবী করেন, আমাদের পরিবারের কোনো সদস্য এ বোমা হামলার সাথে জড়িত নেই এবং এ ধরনের ন্যাক্কারজনক কাজের সাথে তারা জড়িত থাকতে পারেনা। তিনি পুলিশ প্রশাসন ও প্রশাসনের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থাকে বোমা হামলা ঘটনার সুষ্ঠুভাবে তদন্তের দাবি জানান।

প্রসঙ্গত, গত ১৭ জুলাই রাতে পাংশা শহরের দুটি দোকানে বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পাংশা বাজারের ব্যবসায়ী পারভেজ খান সোহেল ও পাংশা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দিবালোক কুন্ডু জীবন বাদী হয়ে পাংশা থানায় পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করেছেন। গত ২১ জুলাই দুপুরে রাজবাড়ীর সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) মো. রবিউল ইসলাম সরেজমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে তিনি মামলার বাদী ও ঘটনাস্থলের আশপাশের লোকজনের সাথে ঘটনার বিষয়ে কথা বলেন।

 


এই নিউজটি 764 বার পড়া হয়েছে
[fbcomments"]