জেলা প্রশাসক সম্পর্কে আপত্তিকর বক্তব্যের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১১:০৮ অপরাহ্ণ ,২ আগস্ট, ২০১৫ | আপডেট: ১১:০৮ অপরাহ্ণ ,২ আগস্ট, ২০১৫
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : কপিতয় সাংবাদিক কর্তৃক রাজবাড়ী কালেক্টরেটের ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী মো. নজরুল ইসলামকে শারীরিক নির্যাতন, সরকারী কাজে বাঁধাদান ও জেলা প্রশাসক মো. রফিকুল ইসলাম খান সম্পর্কে আপত্তিকর ভিত্তিহীন বক্তব্যের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে সরকারী কর্মচারীরা।

রবিবার (২ আগস্ট) দুপুর ১টা থেকে পৌনে ২টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে এ কর্মসূচী পালন করা হয়।

মানববন্ধন ও সমাবেশে কালেক্টরেট সহকারী সমিতি রাজবাড়ী জেলা শাখার সভাপতি মো.আবু দাইয়ান জাহাঙ্গীরের সভাপতিত্বে বাংলাদেশ ৪র্থ শ্রেণীর সরকারী কর্মচারী সমিতি জেলা শাখার সভাপতি মো.টিটু মন্ডল, সাধারন সম্পাদক বাসুদেব কুমার সরকার, ইউনিয়ন সচিব সমিতির সাধারন সম্পাদক মো.নুরুল ইসলাম, ইউনিয়ন ভূমি অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি মো.কামাল উদ্দিন খান, কালেক্টরেট সহকারী সমিতির সাধারন সম্পাদক মো.রফিকুল ইসলাম, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণীর সভাপতি আবুল কালাম দেওয়ান, ইউনিয়ন ভূমি এসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক ইউনুস আলী মুন্সি প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, গত ২৬জুলাই সকালে দৈনিক কালেরকন্ঠ পত্রিকার রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি মো.জাহাঙ্গীর হোসেন ও স্থানীয় দৈনিক রাজবাড়ীকণ্ঠ’র স্টাফ রিপোর্টার আল মামুন আরজুসহ তাদের অনুসারী কতিপয় সাংবাদিক জেলা প্রশাসকের বাংলোতে জোর পূর্বক অনাধিকার প্রবেশের চেষ্টা করে। এ সময় বাংলোর গেটের নৈশ প্রহরী মো.নজরুল ইসলাম সালাম তাদেরকে বাধা দিলে উল্লেখিতরা তাকে শারীরিক নির্যাতন করে ভিতরে প্রবেশ করে। এ ঘটনায় ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী মো. নজরুল ইসলাম সালাম বাদী হয়ে রাজবাড়ী থানায় উল্লেখিত দুই সাংবাদিককে আসামী করে মামলা দায়ের করে। এ ঘটনায় গত ২৭জুলাই দুপুরে সাংবাদিক জাহাঙ্গীর হোসেনের উস্কানীতে জামায়াত শিবির অনুসারী কতিপয় সাংবাদিক ও তাদের কিছু বহিরাগত ব্যক্তি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ ও তার প্রত্যাহার দাবী করে কটুক্তিমূলক বিভিন্ন বক্তব্য প্রদান করে। এর প্রতিবাদে রাজবাড়ী কালেক্টরেটের অধীনস্থ প্রায় ২শতাধিক কর্মকর্তা কর্মচারী ২ আগষ্ট এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করে। ttuu

সমাবেশে তারা ওই সকল সাংবাদিকদেরকে অবাঞ্ছিত ঘোষনা করে বলেন, জেলা প্রশাসক মো. রফিকুল ইসলাম সম্পর্কে যে সকল সাংবাদিক কটুক্তি করে বক্তব্য প্রদান করেছে তাদের দলনেতা বাংলাদেশ ছাত্র শিবিরের রাজবাড়ী সরকারী কলেজ শাখার সভাপতি ছিল এবং সে কলেজ সংসদে ছাত্র শিবিরের পক্ষে নির্বাচনে অংশ নেয়। এছাড়াও এ সকল সাংবাদিক ও তার পরিবারের মধ্যে অধিকাংশ জামায়াত শিবিরের রাজনীতির সাথে জড়িত। বক্তারা ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী নজরুল ইসলাম সালামকে শারীরিক নির্যাতন ও জেলা প্রশাসক সম্পর্কে কটুক্তিমূলক বক্তব্যের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

এ সময় সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড: এম.এ খালেক সরকারী কর্মচারীদের বক্তব্যের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে প্রতিবাদ সমাবেশে যোগ দেন।

 


এই নিউজটি 694 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments