রাজবাড়ীতে মহিলা পরিষদের মানববন্ধন

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৭:৩৫ অপরাহ্ণ ,৬ আগস্ট, ২০১৫ | আপডেট: ৯:৩৯ অপরাহ্ণ ,৬ আগস্ট, ২০১৫
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : সাম্প্রতিক সময়ে শিশু রাকিব ও রাজনের নৃশংস হত্যা এবং মাতৃগর্ভে শিশুর নিরাপত্তাহীনতাসহ দেশে অব্যাহত নারী-শিশু নির্যাতন ও হত্যার প্রতিবাদ এবং এসব ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন করেছেন বংলাদেশ মহিলা পরিষদ রাজবাড়ী জেলা শাখা।

বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) বিকেলে রাজবাড়ী প্রেসক্লাবের সামনে ঘন্টাব্যাপী এ কর্মসূচী পালন করা হয়।

মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন, বংলাদেশ মহিলা পরিষদ রাজবাড়ী জেলা শাখার সভাপতি লাইলী নাহার, সাধারণ সম্পাদক পূর্ণিমা দত্ত, শিক্ষা ও সাংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক ফারহানা মিনি, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডঃ নাজমা সুলতানা, সদস্য শামীমা আক্তার মুনমুন, উদীচীর সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হাসান খোকা, বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি রাজবাড়ী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক এ্যাড: বাবন চক্রবর্তী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি লুৎফর রহমান লাবু, ঘাতক দলাল নির্মূল কমিটির স্বপন দাস, শিশু সুরক্ষা ট্রাস্ট ফোর্সের সভাপতি সাদমান সকিব রাফি, গণজাগরণ মঞ্চের আহনাফ হাসান রবিন প্রমুখ ।

বক্তারা বলেন, গত ১২ জুলাই সিলেট শহরের কুমারগাঁওয়ে রিকশা চুরির গুজব ছড়িয়ে একদল নরপিশাচ শিশু রাজনকে কয়েক ঘণ্টা পিটিয়ে হত্যা করে। মারপিটের সেই দৃশ্যও তারা মোবাইল ফোনে ভিডিও করে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়। প্রায় নিস্তেজ অবস্থায় শিশুটি একটু পানি পান করতে চাইলে মানুষরূপী ওই অমানুষরা তাদের গায়ের ঘাম আঙুল দিয়ে রাজনের মুখে ছুড়ে দেয়। তবু পানি পান করতে দেয়নি। এ ঘটনায় দেশ তোলপাড়ের মধ্যে গত সোমবার খুলনার টুটপাড়ায় মোটর গ্যারেজে আটকে শিশু রাকিবের উপর আরেক বর্বরতা চালায় মানুষ নামের পশুরা। তার মলদ্বার দিয়ে কম্প্রেসারের পাইপ ঢুকিয়ে হাওয়া দিয়ে নিষ্ঠুরভাবে তাকে হত্যা করা হয়। এছাড়াও গত ২৩ জুলাই বৃহস্পতিবার মাগুরা শহরের দোয়াপাড়ায় দলীয় আধিপত্য নিয়ে স্থানীয় যুবলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ চলাকালে আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ নাজমা খাতুন গুলিবিদ্ধ হন। ওই গুলি তার পেটের সন্তানের শরীরও ভেদ করে। শিশুদের উপর এসকল চরম নিষ্ঠুরতা ধারাবাহিকভাবে ঘটেই চলেছে।

বক্তারা আরো বলেন, সামাজিক-পারিবারিক অবক্ষয়ও এখন চরমে। বাবার হাতে ছেলে খুন, ভাইয়ের হাতে বোন, স্বামীর হাতে স্ত্রী এবং সন্তানের হাতে বাবা-মা খুনের ঘটনা সাম্প্রতিক সময়ে অহরহ ঘটে চলেছে। এসকল ক্রমবর্ধমান ঘটনায় আমরা মর্মাহত এবং ক্ষুব্ধ । আমরা নারী ও শিশুদের নিরাপত্তা চাই। শিশু শ্রম বন্ধ চাই। মাতৃগর্ভে শিশু বুলেটবিদ্ধ হওয়ার মতো নির্লজ্জ ঘটনার অবসান চাই।

বক্তারা অনতিবিলম্বে দেশের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার সুষ্ঠু প্রয়োগ এবং সকল প্রকার অপরাধীদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত বিচার নিশ্চিতকরণের দাবী জানান।

এসময় বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন মহিলা পরিষদের সাথে একাত্নতা প্রকাশ করে মানববন্ধনে যোগ দেন।

 


এই নিউজটি 1987 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments