পাংশায় বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত সর্দার নিহত : অস্ত্র-গুলি উদ্ধার

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১১:৪৩ পূর্বাহ্ণ ,১০ আগস্ট, ২০১৫ | আপডেট: ১১:৪৩ পূর্বাহ্ণ ,১০ আগস্ট, ২০১৫
পিকচার

পাংশা প্রতিনিধি : রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কলিমহর ইউপির গোপালপুর গ্রামে পুলিশ ও ডাকাতদলের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে কুক্ষ্যাত ডাকাত সর্দার আব্দুর রব (৩২) নিহত হয়েছে। এসময় পাংশা থানার দুই এসআইসহ মোট ৩ পুলিশ সদস্য আহত হন।

রবিবার (৯ আগস্ট) দিবাগত রাত ১টার দিকে গোপালপুর গ্রামের জনৈক মুন্নাফের বাঁশ বাগানে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

নিহত ডাকাত সর্দার আব্দুর রব কলিমহর ইউপির ফলিমারা গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।

পাংশা থানার অফিসার ইনচার্জ আবু শ্যামা মো.ইকবাল হায়াত জানান, রবিবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে ডাকাত সর্দার আব্দুর রবকে গ্রেফতার করে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী রাত ১টার দিকে তাকে কলিমহর ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের মুন্নাফের বাঁশ বাগানে অস্ত্র উদ্ধারের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা ডাকাত আব্দুর রব গ্রুপের সদস্যরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি বর্ষণ শুরু করে। পুলিশও আত্মক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। এসময় নিজ গ্রুপের সদস্যদের গুলিতে আব্দুর রব গুরুতর আহত হয়। আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ বন্ধুকযুদ্ধে পাংশা থানার এসআই আবু সায়েম, হাফিজুর রহমান ও কনষ্টেবল রফিকুল ইসলামও আহত হয়েছেন।

ওসি আরো জানান, ঘটনাস্থল থেকে ১টি ওয়ান শুটারগান, ২টি কার্তুজ ও ৪টি কার্তুজের খোশা উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত আব্দুর রবের বিরুদ্ধে পাংশা, কালুখালী ও কুমারখালী থানায় একাধিক ডাকাতি মামলা রয়েছে। সে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে সড়ক ডাকাতির আঞ্চলিক সর্দার ছিল বলে জানা গেছে।

এদিকে বন্দুকযুদ্ধে কুক্ষ্যাত ডাকাত রব নিহত হওয়ার খবরে এলাকার মানুষের মাঝে স্বস্তিভাব বিরাজ করছে।

 


এই নিউজটি 800 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments