,

রাজবাড়ীতে অসামাজিক কার্যকলাপ করায় নারী গ্রাম পুলিশ ও দফাদারের কারাদন্ড

News

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ী সদর উপজেলার আলীপুর ইউনিয়নের কল্যাণপুর গ্রামে অসামাজিক কার্যকলাপ করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক এক নারী গ্রাম পুলিশ ও এক দফাদারকে কারাদন্ড প্রদান করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলো :- আলীপুর ইউপির আলাদীপুর গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে ও আলীপুর ইউনিয়ন পরিষদের দফাদার উজ্জল খান (৪০) ও একই ইউপির কল্যাণপুর গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী নারী গ্রাম পুলিশ ফাতেমা বেগম (৫০)।

জানাযায়, ২সন্তানের জনক দফাদার উজ্জল খানের সাথে ৪সন্তানের জননী বিধবা গ্রাম পুলিশ ফাতেমার দীর্ঘদিন পরকীয়া প্রেমের সর্ম্পক চলে আসছিল। এ সর্ম্পকের জেরে উজ্জল প্রায়ই রাতে ফাতেমার বাড়ীতে এসে অসামাজিক কার্যকলাপ লিপ্ত হতো। ঘটনাটি আস্তে আস্তে এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে ভিতরে ভিতরে এলাকার জনগনের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। গত ২১ আগস্ট দিবাগত গভীর রাতে (১টার দিকে) উজ্জল ওই বাড়ীতে আসে এবং অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত হয়। এ সময় স্থানীয় লোকজন তাদেরকে হাতে নাতে ধরে ওই ঘরের মধ্যে আটক করে বাইরে থেকে তালা বদ্ধ করে রাখে। দিনের আলো ফোঁটার সাথে সাথেই ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা ওই বাড়ীতে ভীড় জমায়।

খবর পেয়ে রাজবাড়ী থানার এসআই সোলাইমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরবর্তীতে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহিন শেখ রাজবাড়ী সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেওয়ান মাহাবুবুর রহমানকে জানান। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেওয়ান মাহাবুবুর রহমান ঘটনাস্থলে যান এবং ইউনিয়ন দফাদার উজ্জল খানকে ২মাস ও নারী গ্রাম পুলিশ ফাতেমাকে ১মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন এবং উভয়কেই চাকুরীচ্যুত করেন।

এদিকে নারী গ্রাম পুলিশ ও ইউনিয়ন দফাদারের এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক সমালোচনা ও চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

রাজবাড়ী নিউজ ২৪.কম/ এএফ

 

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর