দৌলতদিয়া পতিতালয়ে বিক্রির তিন দিন পর যুবতী উদ্ধার

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১০:০৫ অপরাহ্ণ ,২৪ আগস্ট, ২০১৫ | আপডেট: ১০:০৫ অপরাহ্ণ ,২৪ আগস্ট, ২০১৫
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : বিক্রির ৩দিন পর দৌলতদিয়া পতিতালয় থেকে সুনামগঞ্জের এক যুবতীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় দৌলতদিয়া পতিতালয়ের আলেয়া বাড়ীওয়ালী (৩৫) কে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গত ২২ আগস্ট রাত সাড়ে ৮টার দিকে ওই যুবতীর পরিবারের সহযোগীতায় তাকে উদ্ধার করা হয়।

ওই যুবতী জানায়, সে গাজীপুর জেলার বাইমেন এলাকায় মজিবরের বাড়ীতে ভাড়া থেকে তুষোকা নামের একটি গার্মেন্টেসে চাকুরী করতো। ওই গার্মেন্টেসে চাকুরীকালে একই ফ্যাক্টারীর সিরাজ (৩২) নামের এক যুবকের সাথে পরিচয় হয়। সিরাজ তাকে ভাল বেতনে অন্যত্র চাকুরী প্রলোভন দেখাতো। গত ১৯ আগস্ট সকাল ১১টার দিকে সিরাজ তাকে ভাল বেতনে চাকুরীর প্রলোভন দেখিয়ে কোণাবাড়ী থেকে নবীনগর বাসষ্ট্যান্ডে নিয়ে আসে। এরপর সেখান থেকে বাসযোগে দৌলতদিয়া নিয়ে আসে। দৌলতদিয়া নিয়ে আসার পর সাগর নামের আরেক যুবক তাদের দুইজনকে দৌলতদিয়া পতিতালয়ের পিছনের গেট দিয়ে প্রবেশ করিয়ে আলেয়া বাড়ীওয়ালীর কাছে নিয়ে যায়। সেখানে সিরাজ তাকে ৫০ হাজার টাকা বিক্রি করে চলে যায়। এরপর থেকে আলেয়া জোরপূর্বক ওই যুবতীকে বিভিন্ন পুরুষ দিয়ে ধর্ষণ করিয়ে আসছিল। গত ২১ আগস্ট এক খদ্দেরের মোবাইল ফোন দিয়ে ওই যুবতীর তার মায়ের কাছে খবর দেয়। গত ২২আগস্ট রাত সাড়ে ৮টার দিকে তার মা ও দুলাভাই গোয়ালন্দ থানা পুলিশের সহযোগীতায় দৌলতদিয়া পতিতালয়ের আলেয়া বাড়ীওয়ালীর বাড়ী থেকে তাকে উদ্ধার করে। এ সময় পুলিশ আলেয়াকে গ্রেফতার করে।

এ ঘটনায় ওই যুবতী আলেয়া ও সিরাজকে আসামী করে গোয়ালন্দ থানায় মানব পাচার ও প্রতিরোধ দমন আইন ২০১২ এর ৬ (২)/১১ ধারায় মামলা দায়ের করেছে।

 


এই নিউজটি 1430 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments