বিদেশে পাঠানোর নামে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে বিয়াইয়ের বিরুদ্ধে বিয়াইনের মামলা

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১০:৫৭ পূর্বাহ্ণ ,১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ | আপডেট: ১০:৫৭ পূর্বাহ্ণ ,১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : ছেলেকে বিদেশে পাঠানোর নামে প্রতারণা করে ৪লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে প্রতারক বিয়াইয়ের বিরুদ্ধে মামলা করেছে বিয়াইন। গত ১১ই সেপ্টেম্বর বিয়াইন পিয়ারা বেগম বাদী হয়ে রাজবাড়ীর বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সদর উপজেলা শহীদ ওহাবপুর ইউপির রামপুর গ্রামের প্রতারক বিয়াই গোলাম মোস্তফার বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলা সূত্রে জানাগেছে, গোলাম মোস্তফার মেয়ে শারমিনের সঙ্গে রাজবাড়ী সদর উপজেলার পাঁচুরিয়া ইউপির মরডাঙ্গা গ্রামের মোছাঃ পিয়ারা বেগমের ছেলে লিটন বিশ্বাসের বিয়ে হয়। এ আত্মীয়তার সুবাদে তারা উভয়ই-উভয়ের বাড়ীতে যাতায়াত করতো। পিয়ারা বেগমের আরেক ছেলে মোঃ আবুল হোসেন ওরফে নেপাল বিশ্বাস বেকার হওয়ায় বিয়াই গোলাম মোস্তফা বিয়াইন পিয়ারা বেগমের কাছে ছেলেকে বিদেশে পাঠানোর প্রস্তাব দেয়। এরপর মোস্তফা পিয়ারা বেগমের কাছে ৪লক্ষ টাকা দাবী করে বলে উল্লেখিত টাকা দিলে ২ মাসের মধ্যে নেপালকে ভালো বেতনের চাকুরী দিয়ে সৌদি আরব পাঠিয়ে দিবে। পিয়ারা বেগম জমি বিক্রি করে এবং ধার-দেনা হয়ে ছেলেকে সৌদি আরব পাঠানোর জন্য সরল বিশ্বাসে গত ১৫ই জুলাই বিয়াই মোস্তফার হাতে নগদ ৪লক্ষ টাকা ও ছেলে নেপালের পাসপোর্ট তুলে দেন। কিন্তু আশ্বাস প্রদান অনুযায়ী ২মাসের মধ্যে ছেলেকে সৌদি আরব পাঠাতে না পারায় পিয়ারা বেগম বিয়াই মোস্তফাকে এ বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়ার তাগিদ দিলে মোস্তফা বিভিন্ন টালবাহানা শুরু করে এবং পিয়ারা বেগমকে ঘুড়াতে থাকে। ঘুড়তে ঘুড়তে অতিষ্ঠ হয়ে গত ১১ই সেপ্টেম্বর পিয়ারা বেগম বিয়াই মোস্তফার বাড়ীতে গিয়ে ছেলেকে সৌদি আরব পাঠানোর বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে মোস্তফা তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। এরপর পিয়ারা বেগম ছেলেকে সৌদি আরব পাঠানো বাবদ দেওয়া ৪লক্ষ টাকা মোস্তফার কাছে ফেরৎ চাইলে মোস্তফা টাকা দিতে অস্বীকার করে এবং পারলে মামলা করে টাকা আদায় করে নেওয়ার কথা বলে।

এ ঘটনায় পিয়ারা বেগম বাদী হয়ে গত ১১ই সেপ্টেম্বর রাজবাড়ীর বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (১) আদালতে দঃবিঃ ৪০৬/৪১৮ ধারায় বিয়াই মোস্তফাকে আসামী করে এ মামলাটি দায়ের করেন।

 

 


এই নিউজটি 645 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments