,

সর্বশেষ :
রাজবাড়ী-১ আসনের জন্য বিএনপির মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন অ্যাড. খালেক ও আসলাম সুষ্ঠু নির্বাচন হলে রাজবাড়ী-১ আসন পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হবো : অ্যাড. খালেক রাজবাড়ী-১ আসনে বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থী অ্যাড. আসলাম মিয়ার গণসংযোগ রাজবাড়ী-১ আসনের জন্য আ’লীগের মনোনয়ন ফরম নিলেন ইমদাদুল হক বিশ্বাস রাজবাড়ীতে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন রাজবাড়ীতে এসএসসি পরীক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম রাজবাড়ী-১ আসনের জন্য আ’লীগের মনোনয়ন ফরম নিলেন আশরাফুল ইসলাম রাজবাড়ী-১ আসনের জন্য জাতীয় পার্টির মনোনয়ন ফরম নিলেন মিল্টন প্রত্যেকটি মানুষের ঘরে শান্তি পৌঁছে দেওয়া হবে : রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার রাজবাড়ীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ চরমপন্থি নেতা নিহত

রাজবাড়ীতে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে আদম বেপারী লাপাত্তা!

News

স্টাফ রিপোর্টার : কারো কাছ থেকে বিদেশে পাঠানোর কথা বলে। কারো কাছ থেকে ধার হিসেবে। আবার কারো কাছ থেকে জমি বিক্রয়ের কথা বলে। এভাবে ২৫/২৬ জনের কাছ থেকে প্রায় ১৩লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার পর পরিবার পরিজন নিয়ে এলাকা থেকে পালিয়ে গেছে আইয়ুব আলী মিজি নামো এক কথিত আদম বেপারী। ঘটনাটি ঘটেছে রাজবাড়ী সদর উপজেলার আলীপুর ইউনিয়নের কল্যাণপুর গ্রামে। এদিকে কষ্টের অর্জিত টাকা পয়সা হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে হা-হুতাশ করে সময় পাড় করছে এসব পরিবারের লোকজন।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, কল্যাণপুর গ্রামের মৃত রুস্তম আলী মিজির ছেলে আইয়ুব আলী মিজি (৫০) এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে নিজেকে আদম বেপারী বলে পরিচয় দিয়ে আসছিল। তার এক নিকট আত্মীয় বিদেশে থাকে বলে সে এলাকার বেকার যুবক ও যুবতীকে বিদেশে ভাল বেতনে চাকুরীর প্রলোভন দেখানো শুরু করে এবং সবার মধ্যে বিশ্বাস অর্জন করে। তার প্রতারনার ফাঁদে পা দেয় কয়েকজন সহজ সরল পুরুষ ও মহিলা। অপর দিকে আইয়ুব আলীর স্ত্রী কুলছুমা বেগম এলাকার মহিলাদের বিশ্বাস অর্জন করে বিভিন্ন সমিতি থেকে তাদের নাম দিয়ে টাকা উত্তোলন করে হাতিয়ে নেয়। এক পর্যায়ে গত ২৯/৭/২০১৫তারিখে তারা পরিজন নিয়ে বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়।SAM_0804

ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে খবির উদ্দিন খান জানান, আইয়ুব আলীর বাড়ী ও তার বাড়ী একই গ্রামে। আইয়ুব আলী প্রথমে বিদেশে লোক পাঠানোর কথা বলে এলাকার বেশ কিছু নারী ও পুরুষের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়। এরপর সে জানায় ট্রাভেলস অফিস তার সাথে প্রতারনা করেছে। একথা বলে সে তার বসতবাড়ীর জমি বিক্রি করে দেনা শোধ করবে জানায়। আইয়ুব আলীর কথায় বিশ্বাস করে আমি তাকে জমি কেনার উদ্দেশ্যে ৪লক্ষ টাকা দিই। অপরদিকে আইয়ুব আলীর স্ত্রী কুলছুমা বেগমও এলাকার মহিলাদের কাছ থেকে বিভিন্ন সমিতি থেকে মোটা অংকের টাকা উত্তোলন করে। কিন্তু মজার বিষয় হলো এসব মহিলারা একই গ্রামের হলেও কেউ কাউকে এই টাকা উত্তোলনের কথা বলেনি। এলাকা থেকে পালিয়ে যাওয়ার পর একে একে তা প্রকাশ পায়। পালিয়ে যাওয়ার কয়েক দিন পর গোপনে আদালতে বাড়ীঘর লুটপাটের অভিযোগে আইয়ুব আলী বাদী হয়ে আমাদের কয়েকজনকে আসামী করে মামলা করে।

এ বিষয়ে ক্ষতিগ্রস্তরা পুলিশ সুপারের আশুহস্তক্ষেপ কামনা করেন।

রাজবাড়ী নিউজ ২৪.কম/ আশিক

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর