রাজবাড়ীর ৩ পৌরসভার ২ টিতে আ’লীগ ও ১ টিতে স্বতন্ত্র মেয়র নির্বাচিত

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১:১৫ অপরাহ্ণ ,৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫ | আপডেট: ১:১৫ অপরাহ্ণ ,৩১ ডিসেম্বর, ২০১৫
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ীর ৩টি পৌরসভার নির্বাচনে ২টিতে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ও ১টি পৌরসভায় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী বেসরকারী ফলাফলে বিজয়ী হয়েছেন। এরা হলেন- রাজবাড়ী সদর পৌরসভার আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী মহম্মদ আলী চৌধুরী, পাংশা পৌরসভার আব্দুল আল মাসুদ বিশ্বাস ও গোয়ালন্দ পৌরসভার স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী শেখ মোঃ নিজাম।

রাজবাড়ী সদরঃ- রাজবাড়ী সদর পৌরসভায় আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি থেকে পৃথকভাবে ৩জন মেয়র প্রার্থী নির্বাচন করেছেন। প্রার্থী ৩ দলের থাকলেও এ পৌরসভায় মূলত ভোটের লড়াই হয়েছে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র মধ্যে। আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী মহম্মদ আলী চৌধুরী নৌকা প্রতীক নিয়ে ১৮হাজার ৬শ ৯৩ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি’র প্রার্থী অর্ণব নেওয়াজ মাহমুদ হৃষিত পেয়েছেন ১১হাজার ৩শ ১২ভোট। এছাড়া জাতীয় পার্টির প্রার্থী শুকুর চৌধুরী পেয়েছেন ৩শ ৭৯ভোট।

পাংশা পৌরসভাঃ- এ পৌরসভায় আওয়ামীলীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, জাসদ ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী হিসেবে পৃথকভাবে ৫জন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন । তবে সকাল ১১টার দিকে বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী চাঁদ আলী খান আওয়ামী লীগের প্রাথীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘন ও ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে নির্বাচন বর্জন করেন। অবশেষে আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী আব্দুল আল মাসুদ বিশ্বাস নৌকা প্রতীক নিয়ে ১২হাজার ৪শ ২৭ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি’র প্রার্থী চাঁদ আলী খান পান ২হাজার ২শ ২৬ভোট। এছাড়া জাতীয় পার্টির প্রার্থী তজিবুর রহমান পান ৬৪, জাসদ প্রার্থী মাসুদুর রহমান মাসুদ ২৭ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী ফরহাদ জামিল রুপু পান ৪শ ৫৭ভোট।

গোয়ালন্দ পৌরসভাঃ- রাজবাড়ী সদর ও পাংশা পৌরসভার চেয়ে একটু ব্যতিক্রমী নিবার্চন হয়েছে গোয়ালন্দ পৌরসভায়। এ পৌরসভায় আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী হিসেবে পৃথকভাবে ৪জন নির্বাচন করেছেন। এদের মধ্যে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী শেখ মোঃ নিজাম নীরব ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে জগ প্রতীক নিয়ে ৬হাজার ৬শ ৭২ভোট পেয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মন্ডল পেয়েছেন ৪হাজার ৭শ ৪৯ভোট। এছাড়া বিএনপি’র প্রার্থী আবুল কাশেম মন্ডল পেয়েছেন ২২০ এবং জাতীয় পার্টির প্রার্থী হেলাল মাহমুদ পেয়েছেন মাত্র ৫৯ভোট।

বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৩টি পৌরসভার ৩৬টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ করা হয়। শীত উপো করে সকাল থেকেই ভোটাররা ২০০৮সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দীর্ঘ ৭বছর বছর পর তাদের দলীয় প্রতীকে ভোট দেওয়ার জন্য ভোটকেন্দ্রে জমায়েত হতে থাকেন।

৩ পৌরসভার বিএনপি’র প্রার্থীরা নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি বলে অভিযোগ করলেও নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোথাও কোন অপ্রিতীকর ঘটনা ঘটেনি। নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে ৩ পৌরসভায় ৩প্লাটুন বিজিবি সদস্য, ৫০জন র‌্যাব সদস্য, ৫শ ২ জন আনছার এবং ৫শ ৪০জন পুলিশ সদসসহ মোট ১২শ ৫জন আইনশৃখলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন ছিলো।

 


এই নিউজটি 867 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments

More News from রাজনীতি