,

রাজবাড়ীর নবাগত ও বিদায়ী জেলা প্রশাসককে সংবর্ধনা প্রদান

News

রাজবাড়ী নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশ এ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস এসোসিয়েশন রাজবাড়ী জেলা শাখার পক্ষ থেকে রাজবাড়ীর নবাগত জেলা প্রশাসক বেগম জিনাত আরাকে বরণ এবং বদলী জনিত কারনে বিদায়ী জেলা প্রশাসক মোঃ রফিকুল ইসলাম খানকে বিদায় সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে।

সোমবার (১ ফেব্রুয়ারী) রাত ৯টায় রাজবাড়ী সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে এ সংবর্ধনা প্রদান করা হয় ।

এ উপলক্ষে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিদায়ী জেলা প্রশাসক মোঃ রফিকুল ইসলাম খান ও নবাগত জেলা প্রশাসক বেগম জিনাত আরা বক্তব্য রাখেন।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) ড.সৈয়দা নওশীন পর্ণিনীর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে রাজবাড়ী মহিলা ক্লাবের সভাপতি ও বিদায়ী জেলা প্রশাসকের সহধর্মিনী মিসেস আফরোজা ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তোফায়েল আহমেদ, সদর উপজেলা চেয়রম্যান এডঃ এম.এ খালেক, এনএসআই-এর উপ-পরিচালক মোঃ জিল্লুর রহমান, কালুখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ কামরুল হাসান ও গোয়ালন্দ উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা জান্নাতুল ফেরদৌস বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বাংলাদেশ এ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস এসোসিয়েশন রাজবাড়ী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেওয়ান মাহাবুবুর রহমান।

এ সময় সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মাহাবুবুল হক, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আশরাফুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণ এবং শিক্ষানবীস সহকারী কমিশনারগণ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে নবাগত জেলা প্রশাসক বেগম জিনাত আরা সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, আজকের এই দিন আমার জীবনের স্মরনীয় দিন। কারণ প্রথমত আমি একটি গুরু দায়িত্ব নিতে যাচ্ছি। এরআগে আমি অর্থ মন্ত্রনালয়ে উপ-সচিব পদে কর্মরত ছিলাম। আর অর্থ মন্ত্রনালয়ের আগে আমি মূলত তের থেকে চৌদ্দ বছর কুমিল্লা, চাঁদপুর এবং মানিকগঞ্জ জেলায় মাঠ পর্যায়েই কাজ করেছি। আমি ১৫তম বিসিএস ক্যাডারের একজন কর্মকর্তা। রাজবাড়ীতে আসার আগে আমি বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা ও বিভিন্ন মাধ্যমে রাজবাড়ীকে জানার চেষ্টা করেছি। আর আজকে এখানে উপস্থিত প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তার কাছ থেকে সুযোগ্য জেলা প্রশাসক মোঃ রফিকুল ইসলাম খান স্যারের বিভিন্ন উদ্ভাবনী কাজ সম্পর্কে যা শুনলাম সেটি খুবই চ্যালেঞ্জিং ছিল যে কোন কর্মকর্তার জন্য। মাত্র এক বছর সাত মাসে স্যারের এত সাফল্য যা সত্যিকার অর্থে প্রশংসার দাবী রাখে। আমি বর্তমানে রাজবাড়ী জেলায় কাজ করার জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত। সকলের সহযোগিতা পেলে স্যারের অসমাপ্ত কাজগুলো শেষ করাসহ বিভিন্ন উন্নয়ন উদ্ভাবনী কাজের মাধ্যমে বর্তমান সরকারের রুপকল্প-২০২১ সালের মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের বিশ্বের বুকে উন্নত আধুনিক ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করব। এছাড়াও তিনি জেলা প্রশাসক মোঃ রফিকুল ইসলাম খানের কাছে প্রয়োজনে যে কোন ব্যাপারে সহযোগিতা আহবান জানান যাতে তিনি জেলার সাধারণ মানুষের উন্নয়নে কাজ করতে পারেন।

বিদায়ী জেলা প্রশাসক মোঃ রফিকুল ইসলাম খান বলেন, রাজবাড়ী জেলায় তার কাজ করার বিভিন্ন অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বলেন, এ জেলার মানুষ অত্যন্ত ভালো। তার কোন হিংসা হানাহানি মূলক কাজ পছন্দ করে না। আর যার কারণে আমি যোগদানের পর থেকে রাজবাড়ীতে কোন ধরণের হিংসা হানাহানি কাজ দেখতে পান নাই। এমকি গত পৌর নির্বাচনে দুই দলের দুই প্রার্থী নির্বাচন করলেও একটি পর্যন্ত ঢিল ছুরাছুরি হয় নাই বলে উল্লেখ করেন। এছাড়াও তিনি বলেন, রাজবাড়ী প্রশাসনসহ জনপ্রতিনিধি ও সাধারণ মানুষ সকলের সহযোগিতার কারণেই এত অল্প সময়ে ২শত দুইটি উদ্ভাবনীমূলক কাজ করা সম্ভব হয়েছে। তিনি তার কর্মকালীন সময়ে তাকে সকলে সহযোগিতা করার জন্য তার পক্ষ থেকে রাজবাড়ীবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং নবাগত জেলা প্রশাসককে সর্বক্ষেত্রে সহযোগিতার মাধ্যমে জেলার উন্নয়ন আরো এগিয়ে নেওয়ার জন্য আহবান জানান।

অনুষ্ঠানের শেষে বিদায়ী জেলা প্রশাসক মোঃ রফিকুল ইসলাম খান নবাগত জেলা প্রশাসক বেগম জিনাত আরাকে রাজবাড়ী জেলার পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এরপর নবাগত জেলা প্রশাসক বেগম জিনাত আরা বিদায়ী জেলা প্রশাসক মোঃ রফিকুল ইসলাম খানকে ক্রেস্ট প্রদান করে বিদায় জানান ও তার ভবিষ্যত জীবনের সর্বক্ষেত্রে সাফল্য কামনা করেন। শুভেচ্ছা ও বিদায় পর্ব শেষে নবাগত ও বিদায়ী জেলা প্রশাসকগণসহ উপস্থিত সকলে প্রীতিভোজে অংশগ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, নবাগত জেলা প্রশাসক বেগম জিনাত আরা ১লা ফেব্রুয়ারী দুপুরে রাজবাড়ীতে যোগদান করেন। আজ ২রা ফেব্রুয়ারী দুপুরে তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করেন । অপরদিকে নবাগত জেলা প্রশাসকের কাছে দায়িক্ত হস্তান্তরের পর বিদায়ী জেলা প্রশাসক মোঃ রফিকুল ইসলাম খান নতুন কর্মস্থল অর্থ বিভাগে যোগদানের জন্য রাজবাড়ী ত্যাগ করেন।

 

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর