দৌলতদিয়ায় অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে কলেজ ছাত্র হাসপাতালে

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১০:৪০ অপরাহ্ণ ,৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ | আপডেট: ১০:৪০ অপরাহ্ণ ,৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬
পিকচার

রাজবাড়ী নিউজ ডেস্ক : চলন্ত ফেরিতে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে সর্বস্ব খুইয়েছে মিরাজ হোসেন (২২) নামের এক কলেজ ছাত্র । অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে ।

সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ পথে এ ঘটনা ঘটে।

মিরাজ ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলার উত্তমপুর গ্রামের জালাল হাওলাদারের ছেলে। সে তিতুমীর কলেজের অনার্স চতুর্থ বর্ষের এক ছাত্র ।

ঘটনার স্বীকার মিরাজের ভগ্নিপতি মাইনুল ইসলাম বাবর জানান, মিরাজ তার দাদার অসুস্থতার খবর শুনে ঢাকা থেকে রাড়িতে যাচ্ছিল। পাটুরিয়া থেকে ছেড়ে আসা একটি ফেরি সকাল ৮টার দিকে দৌলতদিয়া ঘাটে পৌঁছানোর আগে সে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে। তাকে চিপস জাতীয় বস্তু খাইয়ে অজ্ঞান করে নগদ ১০ হাজার টাকা ও একটি দামি মোবাইল ফোন লুটে নিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে গোয়লন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে পুলিশ। আহত মিরাজের জ্ঞান ফিরলে তার কাছ থেকে ঘটনার সঠিক বিবরণ শুনে পুলিশে অভিযোগ করা হবে বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম শাহ্জালাল বলেন, অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পরা ওই ছাত্রকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

সচেতন মহলের অভিযোগ, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ পথে চলাচলকারি ফেরিতে দূর্বল পুলিশি প্রহরার কারণে প্রতিনিয়তই সাধারণ যাত্রীরা অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পরে সর্বস্ব খোয়াচ্ছেন । ফেরিতে পর্যাপ্ত প্রহরার ব্যবস্থা করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।

 


এই নিউজটি 515 বার পড়া হয়েছে
[fbcomments"]