লিপি বাড়িওয়ালী’র রহস্যজনক আত্মহত্যা!

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১১:৩৩ অপরাহ্ণ ,৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ | আপডেট: ১১:৩৮ অপরাহ্ণ ,৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬
পিকচার

রাজবাড়ী নিউজ ডেস্ক : গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া পতিতাপল্লীর প্রভাবশালী ও ধর্নাঢ্য বাড়িওয়ালী লিপি আক্তার (২৮) গলায় ফাঁস নিয়ে তার নিজ ঘরের ফ্যানের সাথে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে। তবে তার এ রহস্যজনক আত্মহত্যা নিয়ে নানা ধুম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে পুলিশ ঘরের দরজা ভাঙ্গা এবং নিচে নামানো অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে।

পতিতাপল্লী সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্র জানায়, পল্লীর প্রভাবশালী সাফিয়া বাড়িওয়ালীর মেয়ে লিপির সাথে সমাজের উপর তলার অনেক প্রভাবশালী ব্যাক্তির সাথে সখ্যতা ছিল। সাম্প্রতিক সময়ে একজন প্রভাবশালী ব্যাক্তি তাকে বিয়ের প্রলভোন দেখিয়ে জরুরী প্রয়োজনে তার কাছ থেকে ৩০/৩৫ লক্ষ টাকা ধার নেয়। কিন্তু  কিছুদিন ধরে ওই ব্যাক্তি তার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দিলে সে হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়ে। এ টাকার যোগান দিতে তাকে স্থানীয় ভাবে ১২/১৩ লক্ষ টাকা ধার-দেনা হতে হয়। পাওনাদারদের চাপে নেশা করে সে আত্মহত্যা করতে পারে বলেও অপর একটি সূত্র জানিয়েছে।

এদিকে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে পুলিশসহ গিয়ে দেখা যায়, ঘরের দরজা ভাঙ্গা এবং লিপির লাশ মেঝেতে পড়ে আছে। লাশটি নামালেও ফ্যানের সাথে সিল্কের একটি ওড়না ঝুলে আছে। এসময় নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন পল্লীবাস অভিযোগ করে জানান, লিপি আত্মহত্যার কারণ উল্লেখ করে চিরকুট লিখে রেখেছিল। কিন্তু দরজা ভেঙ্গে যারা ভিতরে প্রবেশ করে তারা ওই চিরকুট সরিয়ে ফেলতে পারে বলে তারা মনে করছেন।

নিহত লিপির মা সাফিয়া বেগম  জানান, তার মেয়ের সাথে বড় বড় অনেকেরই সম্পর্ক ছিল। তবে তার কোন অভিযোগ নেই। সে বিভিন্ন জায়গায় বহু টাকা ধার-দেনা হলে তাদের চাপে নেশা করে আত্মহত্যা করতে পারে। তার দুটি কন্যা সন্তান আছে। ওর ইচ্ছে ছিল মেয়ে দু’টিকে শিক্ষা-দিক্ষায় মানুষ করবে।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম শাহ্জালাল জানান, লাশের প্রাথমিক সুরতহালে ধারনা করা হচ্ছে সে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে। ( সূত্র- গোয়ালন্দ নিউজ)

 


এই নিউজটি 827 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments