ভন্ড স্বামীর নানান কান্ড, অত:পর শ্রীঘরে

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৪:৩৬ অপরাহ্ণ ,৩ এপ্রিল, ২০১৬ | আপডেট: ৪:৩৬ অপরাহ্ণ ,৩ এপ্রিল, ২০১৬
পিকচার

রাজবাড়ী নিউজ ডেস্ক রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার জঙ্গল গ্রামে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ে করে স্ত্রীর কাছ থেকে নানা ফন্দিতে প্রায় ২০ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে সাগর ওরফে দিলীপ ওরফে সুদীপ্ত বিশ্বাস নামের এক প্রতারক।

আরো অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে অপহরণ নাটক করতে গিয়ে গতকাল ২রা এপ্রিল বালিয়াকান্দি থানা পুলিশের পাতা রোমান্টিক ফাঁদে আটকা পড়ে গ্রেফতার হয় সে। সাগর কুষ্টিয়া জেলার খোকসা উপজেলার পদ্মবিলা গ্রামের দুলাল বিশ্বাসের ছেলে।
এস.আই জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্যা জানান, থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাহিদুল ইসলামের সহযোগিতায় প্রতারক সাগর ওরফে দিলীপ ওরফে সুদীপ্তকে ফাঁদে ফেলে গ্রেফতার করা হয়। সে কখনো ছাত্র, কখনো ধর্নাঢ্য ব্যবসায়ী, কখনো পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর পদে চাকুরী প্রার্থী, কখনো বা এতিম পরিচয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে এক মহিলার নিকট থেকে ধারাবাহিকভাবে ২০ লক্ষ টাকা নেয়। নানা নাটকীয়তার পর অবশেষে গতকাল শনিবার বিকেলে তাকে আটক করা হয়।
বালিয়াকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাহিদুল ইসলাম,পিপিএম জানান, কুষ্টিয়া জেলার খোকসা উপজেলার পদ্মবিলা গ্রামের দুলাল বিশ্বাসের ছেলে সাগর ওরফে দিলীপ ওরফে সুদীপ্ত বিশ্বাস রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার জঙ্গল বাজারে এসে স্বর্ণের কাজ শুরু করে। সেখানে অবস্থানকালে তার পাংশা, ঢাকার সাভারে বাড়ী রয়েছে ও সে কুষ্টিয়া পলিটেকনিক কলেজের ছাত্র, বাবা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং তার মা নেই, তাদের বাড়ী ঘর সব দখল করে নিয়েছে তার চাচারা এ রকম নানা কথা বলে প্রচারণা চালা সে। এরই মধ্যে সে জঙ্গল গ্রামের এক মহিলার সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে তাকে বিয়ে করে। বিয়ের পর ওই মহিলার নিকট থেকে পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর পদে চাকুরী করার কথা বলে ৮লাখ টাকাসহ বিভিন্ন অজুহাতে একের পর এক অর্থ হাতাতে থাকে। এছাড়াও আরো অর্থ হাতিয়ে নেয়ার জন্য ২০১৫ সালের ১৫ই ডিসেম্বর সে তার স্ত্রীকে জানায়, তাকে জঙ্গল ইউনিয়নের ঢোলজানী এলাকা থেকে অপহরণ করা হয়েছে।

এ ঘটনার পর থেকে সে নিজেই বিভিন্ন মোবাইল ফোনের সিম ব্যবহার করে মুক্তিপন হিসাবে স্ত্রীর কাছ থেকে অর্থ হাতাতে থাকে। এ ব্যাপারে জঙ্গলের ওই মহিলা বাদী হয়ে গত ১লা মার্চ বালিয়াকান্দি থানার মামলা নং-১, ধারাঃ ৩৬৫/৩৪ দঃ বিঃ দায়ের করে। বালিয়াকান্দি থানার এস.আই জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্যা মামলার তদন্ত ভার গ্রহন করে ব্যাপক অনুসন্ধান চালায়। অবশেষে গতকাল শনিবার বিকালে তাকে পাংশা একটি হোটেল থেকে বালিয়াকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে থানার এস.আই জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্যা, এএসআই ইউসুফ হোসেন, কনস্টেবল সোহেল, কনস্টেবল ফারুক, কনস্টেবল শিরিন, কনস্টেবল মুক্তা অভিযান চালিয়ে প্রতারক সাগর ওরফে দিলীপ ওরফে সুদীপ্তকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারের পর সাগর ওরফে দিলীপ ওরফে সুদীপ্ত এ চাঞ্চল্যেকর তথ্য প্রদান করে।

 


এই নিউজটি 1050 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments