,

বসন্তপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মান্নান মিয়া বহিস্কার

News

আশিকুর রহমান আগামী ৭ মে অনুষ্ঠিতব্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারাভিযান ও গণসংযোগে অংশগ্রহণ করায় রাজবাড়ী সদর উপজেলার বসন্তপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল মান্নান মিয়াকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।

বুধবার (৪ মে) বিকেলে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক কাওছারুল ফেরদৌস স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বসন্তপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান মিয়া ওই ইউনিয়নে দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ জাকির হোসেন সরদারের বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী মির্জা বদিউজ্জামান বাবুর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারাভিযান ও গণসংযোগ করে চলেছেন । এ বিষয়ে গত ২০শে এপ্রিল জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের জরুরী সভার সিদ্ধান্তের আলোকে তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করা হয়। তিনি লিখিতভাবে জবাব দাখিল করেন। কিন্তু তার দাখিলকৃত জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় এবং দলীয় প্রার্থী মোঃ জাকির হোসেন সরদারের বিপক্ষে এবং বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী কার্যক্রম অব্যাহত রাখায় তাকে দল থেকে বহিস্কার করা হয় ।

উল্লেখ্য, আব্দুল মান্নান মিয়া বসন্তপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করে দীর্ঘদিন জোর লবিং চালিয়েছিলেন । কিন্তু তার যোগ্যতা ও জনপ্রিয়তার কথা বিবেচনা করে দল থেকে তাকে মনোনয়ন দেওয়া হয় নি । মনোনয়ন দেওয়া হয় বসন্তপুর ইউনিয়নের দুই টার্মের নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন সরদারকে । আর এতে ক্ষোভে ফেটে পড়েন আব্দুল মান্নান মিয়া । ক্ষোভ সামলাতে না পেরে ইতিপূর্বে জনসম্মুখে রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী এবং জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কাজী ইরাদত আলীর নামে কটুক্তিমূলক মন্তব্য করেন তিনি । এরপর বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করে তা প্রত্যাহার করে নেন মান্নান মিয়া । শেষ পর্যন্ত তিনি বসন্তপুর ইউনিয়নে দলের অপর বিদ্রোহী প্রার্থী মির্জা বদিউজ্জামান বাবুর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারাভিযান ও গণসংযোগ করে চলেছেন ।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর