,

সড়কে সমুদ্র!

News

রাজবাড়ী নিউজ ডেস্ক : রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ পৌরসভাধীন প্রধান সড়কে সামান্য বৃষ্টিতেই পানি আটকে ব্যাপক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে। সড়কটির কয়েকটি জায়গা নীচু হওয়ায় এবং ড্রেনেজ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়ায় এ সমস্যার সৃষ্টি। সরু এ সড়কে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে প্রতিনিয়ত। ফলে দীর্ঘদিন ধরে জন সাধারণ দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।

সরেজমিন দেখা গেছে, গোয়ালন্দ বাজার বড় মসজিদ হতে বাজার রেলগেইট পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৩শ মিটার সড়কের বেশীর ভাগ এলাকায় ভেঙ্গে জরাজীর্ণ হয়ে গেছে। সড়কের মাঝে বিভিন্ন জায়গায় রড বের হয়ে বিপদজনক হয়ে আছে। সড়কটি অত্যান্ত সরু হওয়ায় এবং ব্যবসায়ীরা প্রতিনিয়ত রাস্তার মাঝে যানবাহন রেখে মালামাল লোড-আনলোড করায় সৃষ্টি হচ্ছে যানজটের। এছাড়া সড়কটি উভয় দিক থেকে ক্রমান্বয়ে ঢালু হওয়ায় চলতি বৃষ্টির মৌসুমে গোয়ালন্দ ঘাট থানা, পুজা মন্ডপ ও পৌর কাউন্সিলর কোমল কুমার সাহার বাড়ীর এলাকায় বৃষ্টির সময় পানি আটকে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে। সড়কের পানি নিস্কাশনের জন্য ড্রেন নির্মান করা হলেও তা অত্যান্ত সাধারণমানের। ড্রেনের বেশীর ভাগ এলাকায় স্লাব ভেঙ্গে বরং তা পানি প্রবাহে বাঁধা সৃষ্টি করছে। একই ভাবে বাজারের আড়তপট্টি এলাকায়ও দীর্ঘদিন ধরে জলাবদ্ধতা সমস্যা দেখা দিচ্ছে।

স্থানীয় জুয়েলারী ব্যবসায়ী আবু ইউসুফ মেম্বার জানান, সামান্য বৃষ্টিতেই সড়কে পানি আটকে কখনো কখনো তা আমাদের মধ্যে উঠে আসে। দীর্ঘদিন ধরেই আমরা সমস্যায় ভুগছি।

হার্ডওয়ার ব্যবসায়ী ফারুক আহমেদ জানান, প্রধান সড়কটি অত্যান্ত সরু। ড্রেনেজ ব্যবস্থাও অত্যান্ত নিম্নমানের। সরু রাস্তার পাশে তারা যানবাহনে মালামাল লোড-আনলোড করতে গেলে প্রায়ই যানজটের সৃষ্টি হয়।

স্থানীয় কাউন্সিলর কোমল কুমার সাহা বলেন, সড়কটি বাজারের মাঝ দিয়ে যাওয়ায় জলাবদ্ধতার প্রভাব বাজারের উপর পড়ে। তাছাড়া ভাঙ্গা রাস্তার বিভিন্ন স্থানের রড বের হয়ে যাওয়ায় তা বিপদজনক হয়ে উঠেছে। দ্রুতই সড়কটির ড্রেনেজসহ উন্নয়ন করা দরকার।

পৌরসভার প্রধান প্রকৌশলী কাজল কুমার নাগ জানান, প্রধান সড়কের বড় মসজিদ হতে বাজার রেলগেইট পর্যন্ত সাড়ে ৩শ মিটার সড়ক ২২ ফুট চওড়া করে এবং প্রয়োজনীয় উচু করে নতুনভাবে নির্মান সেই সাথে ৬শ ৩৮ মিটার আরসিসি ড্রেন এবং বাজারের খাদ্য গুদাম হতে তরকারী বাজার হয়ে বাঁশ হাট পর্যন্ত ৩শ ৭০ মিটার সড়ক নির্মানের ৩টি প্রকল্প এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলীর কার্যালয়ে জমা দেয়া আছে। প্রকল্প ৩টির ব্যয় ধরা আছে ৩ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা। এ প্রকল্পগুলো সম্পন্ন করতে পারলে বাজারের জলাবদ্ধতা ও যানজট সমস্যা দূর হতো।

পৌর মেয়র শেখ মো. নিজাম জানান, বাজারের প্রধান সড়কের জলাবদ্ধতা দুর করার জন্য জরুরি ভিত্তিতে সাময়িক কিছু কাজ করা হচ্ছে। স্থায়ী সমাধানের জন্য প্রকল্প জমা দেয়া আছে। আশা করছি সেগুলো অনুমোদন হয়ে দ্রুত কাজ করতে পারলে আগামী বর্ষা মৌসুম হতে জলাবদ্ধতাসহ অন্যান্য সমস্যা দুর হবে।

 (সূত্র – গোয়ালন্দ নিউজ ডট কম)

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর