রাজবাড়ীতে শিশু রাব্বী হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১১:২৭ অপরাহ্ণ ,২৭ জুলাই, ২০১৬ | আপডেট: ১১:২৭ অপরাহ্ণ ,২৭ জুলাই, ২০১৬
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার রাজবাড়ী জেলা সদরের পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের আন্ধারমানিক গ্রামের চতুর্থ শ্রেণীর মাদ্রাসা ছাত্র রাব্বী শেখ (১৩) কে নির্মমভাবে হত্যার প্রতিবাদ হত্যাকারীদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ কর্মসূচী পালিত হয়েছে

বুধবার (২৭ জুলাই) সকাল ১১টা থেকে বেলা ১২ টা পর্যন্ত আন্ধারমানিক গ্রামবাসীর উদ্যোগে গ্রামের সড়কে কর্মসূচী পালন করা হয়

কর্মসূচীতে চর আন্ধার মানিক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হবিবুর রহমান, মরডাঙ্গা মাদ্রাসার শিক্ষক আলতাফ হোসেন, শিশু রাব্বির নানী সাহেদা বেগম, খালা শিল্পী বেগম, একমাত্র বোন মুক্তা খাতুন বক্তব্য রাখেন

এতে চর আন্ধার মানিক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, মরডাঙ্গা মাদ্রাসার এবং মরডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাসহ এলাকার বিভিন্ন শ্রেণীপেশার কয়েক সহস্রাধিক নারী-পুরুষ শিশু অংশগ্রহণ করেন

বক্তারা নির্মম হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন এবং হত্যাকারীদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শান্তির দাবী জানান

উল্লেখ্য, নিখোঁজের তিনদিন পর গত ২৫শে জুলাই সকাল ১১টার দিকে রাজবাড়ী থানা পুলিশ সদর উপজেলা পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের আন্ধারমানিক গ্রামের কাশেম পাটোয়ারীর বিলে পাটের জাগের নিচ থেকে চতুর্থ শ্রেণীর মাদ্রাসা ছাত্র রাব্বী শেখ (১৩)-এর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেন

নিহত রাব্বী মৃত মোহাম্মদ সরদারের ছেলে

রাব্বীর মামা শাহাদত খোকন জানান, রাব্বী ছোট থেকে আমাদের বাড়িতে (নানা মোহন মল্লিকের বাড়ি) থেকে লেখাপড়া করতো। গত ২২শে জুলাই বিকেলে ফুফুর বাড়ি যাওয়ার কথা বলে রাব্বী বাড়ি থেকে বের হয়। এর কিছু সময় পর জানাযায় রাব্বী ফুফু বাড়ি যায়নি। এরপর থেকে তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে সন্ধান না পেয়ে এলাকায় মাইকিং করা হয়। গত ২৫শে জুলাই সকাল ৮টার দিকে মরডাঙ্গা গ্রামের কাশেম পাটোয়ারীর বিলে পাটের জাগ তোলার সময় রাব্বীর লাশ ভেসে উঠলে ফাতেমা নামে এক মহিলা দেখতে পেয়ে আমাদের খবর দেয়। তার মাথায় চোখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে রাব্বীর লাশ সনাক্ত করি এবং সাথে সাথে পুলিশকে খবর দেই। খবর পেয়ে পুলিশ সকাল ১১টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়

তারা আরো জানান, ভাইয়ের মধ্যে রাব্বী একাই। এক বোনের বিয়ে হয়ে গেছে। ওর মা পরিবারে স্বচ্ছলতা আনতে বিদেশে চাকুরী করে। ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে

রাজবাড়ী থানার ওসি মোঃ আবুল বাশার মিয়া বলেন, ধারণা করা হচ্ছে রাব্বীকে হত্যার পর তার লাশ ফেলে রাখা হয়েছে


এই নিউজটি 1179 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments