পিতাকে হত্যার ঘটনায় সমালোচনার ঝড়, ঘাতক সন্তানের ফাঁসির দাবি

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১০:৩১ অপরাহ্ণ ,২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ | আপডেট: ১০:৩৩ অপরাহ্ণ ,২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
পিকচার

রাজবাড়ী নিউজ২৪.কম : ফরিদপুরে নতুন মডেলের মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ায় পিতার গায়ে আগুন দিয়ে হত্যার ঘটনায় সর্বত্র সমালোচনার ঝড় উঠেছে। বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সমালোচনার বিষয়টি ফুটে উঠেছে। ফেসবুকে ঘাতক সন্তানের ফাঁসির দাবি করছেন অনেকেই। এছাড়া অভিভাবকদের ভোগবাদি মানসিকতারও তীব্র সমালোচনা করেছেন কেউ কেউ।

ফরিদপুরের কমলাপুর মহল্লার ডিআইবি অফিস বটতলার মোড়ের বাসিন্দা শহরবাসীর সুপরিচিত মরহুম রাজ্জাক দারোগার পুত্র রফিকুল হুদা পিন্টু। পৈত্রিক সূত্রে অগাধ সম্পদের মালিক বনে যান তিনি ও তার ভাইয়েরা। তার এক ভাই এটিএম সামসুল হুদা সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার। রফিকুল হুদার একমাত্র পুত্র এই ফারদিন হুদা মুগ্ধ সবেমাত্র এসএসসি পাশ করেছে। অত্যন্ত আদরের এই পুত্রকে পিতা পিন্টু কিনে দিয়েছিলেন ৪ লক্ষাধিক টাকা মূল্যমানের একটি দামি ইয়ামাহা মোটর সাইকেল। কিন্তু পুত্রের আবদার ছিলো আবার তাকে একটি নতুন মডেলের মোটর সাইকলে কিনে দেয়ার। আর এই আবদার পুরণ না করায় তাকে পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে মারলো আদরের সেই একমাত্র সন্তান।

এ খবর জানতে পেরে সূদুর সৌদি আরবে হজ্জের জন্য অস্থানরত পিন্টুর এক বন্ধু একে কিবরিয়া স্বপন ফেসবুকে লিখেছেন, ‘ আমি হজ করতে আসার মাত্র কয়েকদিন আগে পিন্টু ওর ছেলেকে নিয়ে আমার কাছে এসেছিল। পিন্টু ওর ছেলে কে ঢাকা নিয়ে পড়াতে চেয়েছিল। আমিও ওর ছেলে কে যথা সম্ভব বুঝিয়েছিল