রাজবাড়ীতে বাঁশ দিয়ে বানানো ব্যতিক্রমী পুজামণ্ডপ

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৪:২২ অপরাহ্ণ ,২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ | আপডেট: ৪:২৩ অপরাহ্ণ ,২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
পিকচার

রাজবাড়ী নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশের শরতের আকাশ-বাতাস আর কাশফুলের দল জানিয়ে দিয়েছে মা দুর্গার আগমনী। পুজার প্রস্তুতিও চলছে জোরকদমে। বাংলাদেশেও সাধারণ মণ্ডপের বাইরে আছে ব্যাতিক্রমী মণ্ডপ। যেমন, ভিন্ন আঙ্গিকের মন্দিরের আদলে মণ্ডপ নির্মাণ করাচ্ছেন রাজবাড়ী জেলার জামালপুর গ্রামের গোবিন্দ বিশ্বাস। মূলত তাঁর উদ্যোগে এক একর পুকুরের উপর পাঁচ হাজার বাঁশ দিয়ে জল থেকে ৬০ ফুট উঁচু করে ১৫০ ফুট দৈর্ঘ্যের মন্দিরনির্মাণ প্রায় শেষ পর্যায়ে। তিনি জানালেন, চার তলা এই মন্দিরে ২০১টি প্রতিমা স্থাপন করে রামায়ণ-মহাভারত এবং স্বর্গ-নরকের কাহিনি ফুটিয়ে তোলা হবে। প্রথম তলায় রামায়ণ, দ্বিতীয় তলায় মহাভারত, তৃতীয় তলায় স্বর্গ-নরক এবং শেষ তলায় একটি গুহা নির্মাণ করে সেখানে লক্ষ্মীনারায়ণের প্রতিমা দিয়ে বাঁশের তৈরি এই মন্দির সাজানো হবে।

তিনি জানান, শেষ তলায় কাঠ দিয়ে একটি পুকুর তৈরি করে সেখানে পাটশোলা দিয়ে তৈরি লক্ষ্মীনারায়ণ প্রতিমা বিশেষ কৌশলে ঘোরানোর ব্যবস্থা করা হবে। প্রথম তলায় ফোয়ারা থাকবে যা পুকুরের উপরে এসে পড়বে। আর মানানসই আলোকসজ্জা তো থাকছেই।

মণ্ডপের প্রধান কারিগর জ্ঞানেন্দ্রনাথ মণ্ডল জানালেন, তাঁরা ৩০ জন কারিগর চার মাস ধরে কাজ করে প্রায় শেষের পথে চলে এসেছেন। গ্রাম জামালপুর দুর্গাপূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক বিধানকুমার চক্রবর্তী বলেন, ‘‘আমরা প্রতি বছর দর্শনার্থীদের কথা মাথায় রেখেই এই ব্যতিক্রমী চেষ্টা করি। ২০০৬ থেকে আমাদের এই ব্যতিক্রমী চেষ্টা হলেও ২০১০ সাল থেকে লক্ষাধিক পুণ্যার্থী এখানে আসেন।গত বছর এখানে প্রায় চার লক্ষ মানুষ এসেছিলেন।’’rb1

পুজার নিরাপত্তার ব্যাপারে বালিয়াকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার জাহিদুল ইসলাম জানালেন, বালিয়াকান্দিতে আসন্ন দুর্গাপুজা উপলক্ষে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে।বিশেষ করে গ্রাম জামালপুরের গোবিন্দ বিশ্বাসের বাড়ির দুর্গাপুজায় বিশেষ নজরদারি থাকবে। তিনি বলেন, ‘‘যেহেতু এই পুজার প্রতিমাগুলি লক্ষ্মীপূজার দিনে বিসর্জন হয়ে থাকে সেহেতু আমরা শেষ দিন পর্যন্ত নিরাপত্তা দিয়ে যাব।’’

 (সূত্র- আনন্দবাজার)


এই নিউজটি 587 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments