গোয়ালন্দে একটি গাভীর জমজ বাছুর, অরেক গাভী দুধ দিচ্ছে বাছুর ছাড়াই

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১০:০৫ অপরাহ্ণ ,২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ | আপডেট: ১০:০৫ অপরাহ্ণ ,২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ পৌরসভার বদিউজ্জামান পাড়া এলাকার মজিবর মাষ্টারের একটি গাভী দুটি জমজ বাছুর জন্ম দিয়েছে বাছুর দুটি একই সাথে মায়ের দুধ পান করছে

অপরদিকে একই উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়ন চর বালিয়াকান্দী বাড়ইডাঙ্গা গ্রামের সনদ বিশ্বাসের একটি গাভী বাচ্চা জন্ম দেওয়ার আগেই দুধ দিতে শুরু করেছে।

বদিউজ্জামান পাড়া মজিবর মাষ্টারের বাড়ীতে গিয়ে জানা গেছে, চলতি মাসের ১৭ তারিখ আনুমানিক সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তার গাভীটি দুটি বাছুর প্রসব করে। এটি তার গাভীর দ্বিতীয় বাচ্চা প্রসব

ব্যপারে মজিবর মাষ্টার জানান, ‘প্রথম বার প্রসবের আগে গাভীটির পেটে বাচ্চা থাকা অবস্থায় একাটানা / মাস পর্যন্ত প্রতিদিন / কেজি করে দুধ দিতো। আর এবার গাভীটি দুটি বাচ্চা দিলো, সবই আল্লাহর ইচ্ছার প্রতিফলন।

অপর দিকে, বাচ্চা দেয়ার আগেই দুধ দিতে শুরু করেছে আরেকটি গাভী। প্রতিদিন / কেজি করে দুধ দিয়ে আসছে গাভীটি। উপজেলার ছোটভাকলা ইউনয়নের চরবালিয়াকান্দী গ্রামে সনদ বিশ্বাসের বাড়ীতে গিয়ে এমনি এক আশ্চর্য ঘটনা চোখে পড়ে। এসময় গৃহকর্ত্রী মিনু বিশ্বাসকে ব্যস্ত দেখা যায় দুধ সংগ্রহে। জানা গেছে, গত বছর আগে ২৮ হাজার টাকায় গাভীটি ক্রয় করেন তারা

সনদ বিশ্বাসের স্ত্রী মিনু বিশ্বাস জানান, ‘বর্তমানে গাভীটি মাসের গর্ভবতী। গাভীটির পেটে বাচ্চা ধারণ করার তিন মাস পর একদিন হঠাৎ বান থেকে দুধ চুয়ে পড়তে দেখা যায়। এসময় আমরা খুবই চিন্তি হয়ে পড়ি। পরে উপজেলা পশু হাসপালের ডাক্তারকে খবর দেই।

এরপর গোয়ালন্দ উপজেলা পশু হাসপাতালের ডাঃ পলাশ কান্তী বাচ্চা ছাড়াই দুধ দেওয়া গাভিটি দেখতে যান। তিনি জানান, দুধ সংগ্রহের (দোহন) সময় গাভীর সামনে বাছুর না থাকলে দুধ সংগ্রহে ব্যাঘাত ঘটে। তারপরও গাভী থেকে দুধ সংগ্রহ করতে হবে। প্রাকৃতিক নিয়মেই প্রসবের আগে গাভীটির শরীরে অতিরিক্ত দুধ জমতে শুরু করেছে।

ব্যাপারে গোয়ালন্দ উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ বরুণ কুমার দত্ত জানান, দুটি ঘটনাই প্রাকৃতির কারণে ঘটেছে। একটি পূর্ণবয়স্ক গাভীর ডিম্বাশয়ে স্বাভাবিক নিয়মে প্রতি ২১ দিন পর একটি করে ডিম্বানু তৈরী হয়। এটাকে গাভীর গরম হওয়ার প্রিয়ড বলে। গরম হওয়া প্রিয়ডে প্রাকৃতিক নিয়মে গাভীর ডিম্বাশয়ে যদি একের অধিক ডিম্বানু সৃষ্টি হয় আর সময় ষাড়ের শুক্রানুর সমন্ময় ঘটে তাহলে ধরনের জমজ বাছুর জন্ম হয়ে থাকে। আবার গাভী গর্ভবতী থাকা কালীন সময়ে Estrogen and Progesteron হরমন এর প্রভাবে অগ্রীম দুধ দানের ঘটনা ঘটতে পারে


এই নিউজটি 1168 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments