,

রাজবাড়ী জেলা আ’লীগ থেকে সহ-সভাপতি মর্জিকে বহিস্কার

News

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্রশাসক আকবর আলী মর্জিকে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও নেতৃবৃন্দের নামে বিষেদাগার করায় দলীয় পদ থেকে সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে।

শনিবার (১২ নভেম্বর) জেলা আওয়ামী লীগের সভায় তাকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রাজবাড়ী-২ আসনের এমপি মোঃ জিল্লুল হাকিম। সভা পরিচালনা করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও রাজবাড়ী-১ আসনের এমপি আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী।

সকাল ১১টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত দীর্ঘ সাড়ে ৩ ঘন্টার এ সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শেখ আব্দুস সোহবান, এডঃ গনেশ নারায়ন চৌধুরী, ফকির আব্দুল জব্বার, এডঃ এম.এ মান্নান, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক কাজী ইরাদত আলী, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা মহসীন উদ্দিন বতু, দপ্তর সম্পাদক শেখ গোলাম মোস্তফা বাচ্চু, মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক কাজী রকিবুল হোসেন শান্তনু, গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ নুরুজ্জামান, পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম শফিকুল মোরশেদ আরুজ, কালুখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী সাইফুল ইসলাম, বালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ রমজান আলী খান, রাজবাড়ী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি এডঃ উজির আলী শেখ, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শফি, গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও দৌলতদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল প্রমুখ।

সভায় বিগত ইউপি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে অবস্থান নেয়া এবং সংগঠন ও সরকার বিরোধী বক্তব্য প্রদান করায় ওই সময়ে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্রশাসক আলহাজ্ব আকবর আলী মর্জির বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ উঠে। সম্প্রতি (১৩ অক্টোবর) সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় জেলার শীর্ষ নেতৃবৃন্দের নামে বিষেদাগার ও মিথ্যাচার করায় সভায় জেলা কমিটির সকল সদস্য তাকে দল থেকে বহিস্কারের দাবী তোলেন।

সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমপি মোঃ জিল্লু হাকিম বলেন, জেলা পরিষদের প্রশাসকের কক্ষে সাংবাদিক সম্মেলনে আকবর আলী মর্জি যে কু-রুচি বক্তব্য প্রদান করেছে তা খুবই দুঃখজনক।

আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী বলেন, জেলা পরিষদের সেই সাংবাদিক সম্মেলনে আকবর আলী মর্জি যে মিথ্যাচার ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিয়েছে তা পত্রিকায় এসেছে। তার অডিও রেকর্ডও আছে।

সভায় সর্বসসম্মতিক্রমে আকবর আলী মর্জিকে জেলা কমিটির সহ-সভাপতি পদ থেকে সাময়িক বহিস্কারের জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ এবং পরবর্তীতে তাকে স্থায়ীভাবে বহিস্কারের জন্য জেলা কমিটির সিদ্ধান্ত কেন্দ্রে পাঠানো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এছাড়াও সভায় গোয়ালন্দ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলার ভাইচ চেয়ারম্যান গোলাম মাহাবুব রব্বানীকে দল থেকে স্থায়ীভাবে বহিস্কার করা হয়।

সভা শেষে জেলা কমিটির সভাপতি এমপি মোঃ জিল্লুল হাকিম জানান, জেলা কমিটির সকল সদস্যের দাবীর প্রেক্ষিতে সহ-সভাপতি আকবর আলী মর্জিকে সাময়িক বহিস্কার করে তাকে স্থায়ী বহিস্কার ও দলের প্রাথমিকভাবে পদ বাতিলের জন্য কেন্দ্রীয় কমিটিতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এছাড়াও সভায় গোয়ালন্দ পৌর আওয়ামী লীগের সাময়িক বহিস্কৃত সভাপতি গোলাম মাহাবুব রব্বানীকে দল থেকে স্থায়ীভাবে বহিস্কার করা হয়।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর