রাজবাড়ী জেলা পরিষদ নির্বাচনে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ৭ জনের আবেদন

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৪:৩৬ অপরাহ্ণ ,২০ নভেম্বর, ২০১৬ | আপডেট: ৪:৩৬ অপরাহ্ণ ,২০ নভেম্বর, ২০১৬
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার॥ আসন্ন রাজবাড়ী জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চেয়ে স্থানীয় ৭জন নেতা ঢাকার ধানমন্ডিস্থ দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দপ্তর সম্পাদকের কাছে আবেদনপত্র জমা দিয়েছেন।

মনোনয়নের জন্য আবেদনপত্র জমাদানকারী নেতারা হলেন ঃ রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কাজী ইরাদত আলী, পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি উপাধ্যক্ষ একেএম শফিকুল মোরশেদ আরুজ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি (বহিস্কারের জন্য প্রস্তাবিত) ও জেলা পরিষদের বর্তমান প্রশাসক আকবর আলী মর্জি, সহ-সভাপতি ফকীর আব্দুল জব্বার, পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ হাসান আলী বিশ্বাস, পাংশার প্রবীন রাজনৈতিক নেতা ও জেলা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি খান আব্দুল হাই এবং কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা কৃষক লীগের সেক্রেটারী নূরে আলম সিদ্দিকী হক।

একাধিক সুত্র জানিয়েছে, শনিবার (১৯ নভেম্বর) পর্যন্ত ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগের সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে উল্লেখিত ৭টি আবেদনপত্র জমা পড়েছে।

তবে আসন্ন রাজবাড়ী জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়নের দৌড়ে বেকায়দায় পড়েছেন বর্তমান জেলা পরিষদ প্রশাসক আকবর আলী মর্জি। তাকে দলীয় মনোনয়ন না দেওয়ার জন্য গত ১৫ই নভেম্বর সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের কাছে লিখিত আবেদন করেছেন জেলা পরিষদ নির্বাচনের ৫৫২জন জনপ্রতিনিধি ভোটার।

উক্ত দরখাস্তে আকবর আলী মর্জিকে দলীয় মনোনয়ন না দেওয়ার রাজবাড়ী জেলার ৪জন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ২জন পৌরসভা মেয়র, ২৪জন পৌর কাউন্সিলর, ৪০জন ইউপি চেয়ারম্যান এবং ৪৭৭জন ইউপি সদস্য ও মহিলা সদস্যা এবং উপজেলার ভাইচ চেয়ারম্যানসহ মোট ৫৫২জন স্বাক্ষর করেন। উল্লেখ্য, রাজবাড়ী জেলা পরিষদের নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ৬০০জন।

এরআগে গত ১২ই নভেম্বর দুপুরে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সভায় সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক আকবর আলী মর্জিকে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও নেতৃবৃন্দের নামে বিষেদাগার করায় জেলা কমিটির সকল সদস্যের দাবীর প্রেক্ষিতে তাকে দলীয় পদ থেকে সাময়িক বহিস্কার করে স্থায়ী বহিস্কার ও দলের প্রাথমিকভাবে পদ বাতিলের জন্য কেন্দ্রীয় কমিটিতে সিদ্ধান্ত প্রেরন করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ১৩ই অক্টোবর-২০১৬ তারিখ বেলা ১১টায় জেলা পরিষদ কার্যালয়ে অফিস কক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে জেলা পরিষদ প্রশাসক আকবর আলী মর্জি জেলা আ’লীগের নেতৃবৃন্দ ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সম্পর্কে বিষেদগারমূলক বক্তব্য দেন। যা স্থানীয় পত্র-পত্রিকা ও অনলাইন মিডিয়ায় প্রকাশিত হবার পর দলের মধ্যে ও জেলার রাজনৈতিক এবং প্রশাসনিক মহলে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

উল্লেখ্য, রাজবাড়ী জেলা পরিষদ নির্বাচনে রাজবাড়ীর ৫টি উপজেলা পরিষদ, ৩টি পৌরসভা ও ৪২টি ইউনিয়ন পরিষদ মিলিয়ে মোট ভোটার ৬০০জন। এরমধ্যে রাজবাড়ী-১ সংসদীয় এলাকায় ২টি উপজেলা পরিষদ, ২টি পৌরসভা ও ১৮টি ইউনিয়ন পরিষদের মোট ভোটার ২৬৬জন এবং রাজবাড়ী-২ সংসদীয় এলাকায় ৩টি উপজেলা, ১টি পৌরসভা ও ২৪টি ইউনিয়ন পরিষদের মোট ভোটার ৩৩৪জন। রাজবাড়ী-২ সংসদীয় এলাকায় ৬৮টি ভোট বেশী।

(সূত্র- দৈনিক মাতৃকন্ঠ)


এই নিউজটি 1239 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments

More News from রাজনীতি