,

বিস্কুট আকারে সোনা খেয়ে পাচারের চেষ্টা, অবশেষে বিপত্তি

News

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ চোরাচালানের জন্য ১২টি সোনার বিস্কুট গিলে ফেলেছিলেন এক ভারতীয় ব্যবসায়ী। এভাবে বিমানবন্দরের নিরাপত্তারক্ষীদের ফাঁকি দিয়ে সফলভাবেই সিঙ্গাপুর থেকে ভারতে ফেরেন তিনি। এরপরই ঘটে বিপত্তি। নয়াদিলি্লর চাঁদনী চকের বাসিন্দা ওই ব্যবসায়ী ভেবেছিলেন, মলত্যাগের মাধ্যমে সোনার বিস্কুটগুলো পেট থেকে বের করে ফেলতে পারবেন। কিন্তু কিছুতেই সেগুলো বের করতে পারেননি তিনি। একপর্যায়ে শুরু হয় তীব্র পেটব্যথা। সহ্য করতে না পেরে ৯ এপ্রিল চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন ওই ব্যবসায়ী। চিকিৎসকদের তিনি জানান, রাগের মাথায় পানির বোতলের ছিপি গিলে ফেলেছেন। কিন্তু তার এই মিথ্যে ধরা পড়ে যায়। চিকিৎসকেরা অস্ত্রোপচার করে তার পেট থেকে সোনার ১২টি বিস্কুট বের করেন। প্রতিটি বিস্কুটের ওজন ৩৩ গ্রাম। ১২টি বিস্কুটের মোট ওজন ৩৯৬ গ্রাম। যার বাজারমূল্য প্রায় ১২ লাখ রুপি।

চিকিৎসকেরা জানান, ১০ দিন ধরে কিছুই খাননি ওই ব্যবসায়ী। তার ধারণা ছিল, ‘সোনার বিস্কুটগুলো মলের সঙ্গে বেরিয়ে আসবে। কিন্তু তা হয়নি। সেগুলো তার ক্ষুদ্রান্ত্রে আটকে যায়।’ চিকিৎসক ধাওয়াল শর্মা বলেন, ‘পেটে ব্যথা শুরু হলে ওই ব্যবসায়ী আমাদের কাছে অস্ত্রোপচারের জন্য আসেন। তিনি জানান, বোতলের ছিপি গিলে ফেলেছেন তিনি। দুই ঘণ্টার জটিল অস্ত্রোপচারের পর তার পেটে সোনার ১২টি বিস্কুট খুঁজে পাই আমরা।

নয়াদিলি্লর স্যার গঙ্গারাম হাসপাতালের চিকিৎসক সি এস রামাচন্দ্রন বলেন, ‘১৯৮৯ সাল থেকে আমি ওই ব্যবসায়ীর চিকিৎসা করে আসছি। চাঁদনী চকের ধনাঢ্য ব্যবসায়ী হিসেবেই তাকে চিনতাম। তার দুই ছেলে দেশের বাইরে থাকে। তার মতো একজন লোক এমন কাজ করতে পারেন, জেনে একই সঙ্গে আমি বিস্মিত ও মর্মাহত।’ টাইমস অব ইন্ডিয়া।

 

রাজবাড়ী নিউজ ২৪ ডট কম/এন আর এইচ/৭.৪৮ পিএম

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর