প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় দুই বোনকে প্রকাশ্যে মারপিট!

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ২:৩৩ পূর্বাহ্ণ ,১০ জানুয়ারি, ২০১৭ | আপডেট: ২:৩৩ পূর্বাহ্ণ ,১০ জানুয়ারি, ২০১৭
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় রাজবাড়ীতে কলেজছাত্রী দুই বোনকে প্রকাশ্যে মারপিট করেছে বখাটেরা।

সোমবার (৯ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শহরের কলেজ রোডের আরএসকে স্কুল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। দুজনই রাজবাড়ী সরকারি কলেজের ছাত্রী।

তারা হলেন- জেলা সদরের বরাট ইউনিয়নের দিন মজুর ফারুকুজ্জামানের মেয়ে ডিগ্রীর প্রথম বর্ষের ছাত্রী মুক্তা খাতুন ও এইচএসসির প্রথম বর্ষের ছাত্রী শান্তনা পারভীন।

মুক্তা খাতুন জানায়, তারা দুই বোন সোমবার সকালে বাড়ি থেকে এক সাথে বের হয়। এরপর সে কলেজে আসে ও তার ছোট বোন কলেজ পাড়ায় প্রাইভেট পড়তে যায়। প্রাইভেট পড়ে তার ছোট বোনও কলেজে আসলে তারা দুজনসহ তাদের বান্ধবীরা কমন রুমের সামনে বসে গল্প করছিল। এ সময় একই কলেজের ছাত্র সুমন ও তার সাথে থাকা কয়েকজন শান্তনাকে ডাক দেয়। কিন্তু শান্তনা তার ডাকে সাড়া না দিলে তারা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ও খারাপ হবে বলে হুমকি দেয়। এরপর তারা ওই বখাটেদের ভয়ে অধ্যক্ষের রুমের সামনে এসে আশ্রয় নেয়। এর কিছুক্ষণ পরে তারা দুইবোনসহ চার/পাঁচজন বাড়ি ফেরার উদ্দেশ্যে সেখান থেকে রওনা হয়। পথিমধ্যে কলেজ রোডের আরএসকে স্কুলের একটু সামনে এলেই সাত/আটজন বখাটে তাদের গতিরোধ করে এবং শান্তনাকে গালমন্দ করতে থাকে। এসময় মুক্তা প্রতিবাদ করলে বখাটেরা তার স্কার্প ধরে টান দেয় এবং তাকে মারপিট করে। বড় বোনকে বাঁচাতে গেলে বখাটেরা শান্তনাকেও বেদম মারপিট করে।

সে আরো জানায়, প্রকাশ্য এ ঘটনা ঘটলেও কেউ তাদেরকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেনি।

শান্তনা পারভীন জানায়, সে যখন দশম শ্রেণিতে পড়তো তখন থেকেই সুমন প্রেমের প্রস্তাব দেয়াসহ বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করে আসছিলো।

সদর থানার ওসি মো. আবুল বাশার মিয়া বলেন, যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তারা প্রত্যেকেই রাজবাড়ী সরকারি কলেজের ছাত্র। লাঞ্ছিতরা সুমনসহ সাতজনকে চিনতে পেরেছে। আমরা তাদেরকে চিহ্নিত করে মামলা করবো এবং যত দ্রুত সম্ভব তাদেরকে গ্রেফতার করবো।

রাজবাড়ী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ জয়নাল আবেদীন জানান, ঘটনাটি যখন ঘটে তখন তিনি কলেজের ইসলাম ও সংস্কৃতি বিভাগে একটি অনুষ্ঠানে ছিলেন। অনুষ্ঠান চলাকালে এক ছাত্র গিয়ে বিষয়টি তাকে জানান। এরপর তিনি ওই দুই ছাত্রীর কাছ থেকে বিস্তারিত শুনে থানায় খবর দেন। অভিযুক্ত ছাত্রদের সনাক্ত করা হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


এই নিউজটি 2371 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments

Developed by: Tech-Loge

x