রাতের আধারে স্কুলের তালায় সুপার গ্লু!

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১০:০৬ অপরাহ্ণ ,১৬ মে, ২০১৭ | আপডেট: ১০:০৯ অপরাহ্ণ ,১৬ মে, ২০১৭
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সবগুলো শ্রেণীকক্ষের তালায় সুপার গ্লু আঠা লাগানো হয়েছে।

সোমবার (১৫ মে) দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার (১৬ মে) সকালে শ্রেণীকক্ষ খুলতে গিয়ে বিষয়টি দেখতে পান নৈশ প্রহরী রুহুল শেখ।

এসময় স্কুলে গিয়ে শতাধিক শিক্ষার্থী ক্লাসে ঢুকতে না পেরে মাঠে অপেক্ষা করতে থাকে। পরে বেলা ১১টার দিকে উপজেলা সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফারুখ হোসেন গিয়ে তালা ভাঙার অনুমতি দিলে তালা ভেঙে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ঢোকানো হয়।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আলী আকবারকে আহবায়ক করে ৭ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এদিকে, শিক্ষার্থীদের সাথে স্কুলটির প্রধান শিক্ষকের অসৌজন্যমূলক আচরণের ফলে এ ঘটনা ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ও স্কুলের তালা লাগানোর ঘটনায় তদন্ত কমিটির সদস্য মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালাম শিক্ষার্থীদের সাথে বিভিন্ন সময় খারাপ আচরণ করেন। রোববার (১৪ মে) তিনি শতাধিক শিক্ষার্থীকে স্কুল ড্রেস না পড়ে ক্লাসে যাওয়ায় খারাপ আচরণ করে ক্লাস থেকে বের করে দেন। এ ঘটনায় ওইদিন শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা আমার কাছে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। এরপরদিন রাতেই স্কুলের সবগুলো শ্রেণীকক্ষের তালায় সুপার গ্লু আঠা লাগানোর ঘটনা ঘঠলো। শিক্ষার্থীদের সাথে প্রধান শিক্ষকের অসৌজন্যমূলক আচরণের কারণেই এ ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, ওই স্কুলে আলেয়া বেগম নামে একজন মহিলা দপ্তরি থাকা স্বত্ত্বেও প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালাম স্কুলের নৈশ প্রহরী রুহুল শেখকে দিয়ে দপ্তরির কাজ করান। ফলে রুহুল শেখ রাতে স্কুলে ডিউটি করেন না। এসব বিষয় মিলিয়ে স্কুলের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা প্রধান শিক্ষকের উপর ক্ষুব্ধ।

এ বিষয়ে বালিয়াকান্দি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের তালায় সুপার গ্লু আঠা লাগানোর খবর পেয়ে সেখানে সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফারুখ হোসেনকে পাঠানো হয়। তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সহযোগীতায় তালা ভেঙে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ঢোকান।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আলী আকবারকে আহবায়ক করে ৭ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৫ দিনের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে বলে জানান তিনি।

এদিকে, এ বিষয়ে কথা বলার জন্য নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালামের ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে একাধিকবার ফোন দেওয়া হলেও নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়।

রাজবাড়ী নিউজ২৪.কম/ আশিক


এই নিউজটি 1134 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments