বালিয়াকান্দিতে শ্বশুড়বাড়িতে জামাইয়ের রহস্যজনক মৃত্যু

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৬:৪৬ অপরাহ্ণ ,২৪ মে, ২০১৭ | আপডেট: ১০:০৫ অপরাহ্ণ ,২৫ মে, ২০১৭
পিকচার

আশিকুর রহমান॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলায় শ্বশুড়বাড়িতে বেড়াতে এসে অনন্ত দাস (২৫) নামে এক যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (২৪ মে) দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়নের পূর্ব মৌকুড়ি গ্রামে অনন্তের শ্বশুড়বাড়ি থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। অনন্ত মাগুরা জেলা সদরের পারনান্দুয়ালী গ্রামের অনিল দাসের ছেলে।

অনন্তের শ্বশুড়বাড়ির লোকজনের দাবি স্ট্রোক করে মারা গেছেন তিনি। তবে তার নিজের পরিবারের মধ্যে মৃত্যু নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি হওয়াতে পরিবারের পক্ষ থেকে মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য থানায় আবেদন করা হয়েছে।

অনন্ত দাসের বড় ভাই সুশান্ত দাস বলেন, দেড় বছর আগে আমার ভাই অনন্তের সঙ্গে পূর্ব মৌকুড়ি গ্রামের পরেশ দাসের মেয়ে উন্নতি দাসের বিয়ে হয়। শুক্রবার (১৯ মে) অনন্ত তার শ্বশুড় বাড়িতে বেড়াতে যায়। বুধবার (২৪ মে) সকালে আমাদের কাছে তার শ্বশুড়বাড়ি থেকে ফোন করে জানানো হয়, আমার ভাই স্ট্রোক করে মারা গেছে। এরপর আমরা তার শ্বশুড়বাড়িতে গিয়ে আমার ভাইয়ের মরদেহ দেখতে পাই। হঠাৎ করে আমার ভাইয়ের অকাল মৃত্যু আমাদের কাছে গোল মাল মনে হচ্ছে। তাই আমার ভাইয়ের মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বালিয়াকান্দি থানায় লিখিত আবেদন করেছি।

অনন্তের শ্বশুড় পরেশ দাস বলেন, মঙ্গলবার (২৩ মে) রাতে অনন্ত কাঁঠাল খায়। এরপর রাত ৩টার দিকে সে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে বালিয়াকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। এসময় সেখানকার চিকিৎসক জানান স্ট্রোকের কারণে হাতপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

এ বিষয়ে বালিয়াকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাহিদুল ইসলাম বলেন, পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে অনন্তের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।


এই নিউজটি 1029 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments

Developed by: Tech-Loge

x