রাজবাড়ীতে মাদক ব্যবসায়ীকে ‘গণধোলাই’ দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ৭:৫৭ অপরাহ্ণ ,২৭ মে, ২০১৭ | আপডেট: ২:০৭ অপরাহ্ণ ,২৮ মে, ২০১৭
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার॥ রাজবাড়ী জেলা সদরের বসন্তপুর ইউনিয়নের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী উজ্জল সরকারকে (৩৫) গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছেন স্থানীয় জনগণ। অসুস্থ্য অবস্থায় তাকে পুলিশি হেফাজতে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। উজ্জল বসন্তপুর ইউনিয়নের হাটজয়পুর গ্রামের সমরেশ চন্দ্র ওরফে নিতাই সরকারের ছেলে।

উজ্জলের প্রতিবেশী ফরিদপুর সদর উপজেলার ঈশান গোপালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ মো. জামাল উদ্দিন বলেন, উজ্জলের বাড়ি বসন্তপুর ইউনিয়নের শেষ সীমানায় ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের কাছে। এ কারণে সে ঈশান গোপালপুর ও বসন্তপুর এই দুই ইউনিয়নে মাদক ব্যবসা করে বেড়ায়। তার মাদক ব্যবসার কারণে এলাকার যুবসমাজ ধ্বংসের পথে ধাবিত হচ্ছে। এছাড়াও সে নিষিদ্ধ ঘোষিত চরমপন্থি সংগঠের সঙ্গে জড়িত। নিজ এলাকাসহ রাজবাড়ী ও ফরিদপুর জেলার বিভিন্ন স্থানে তার বিরুদ্ধে অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে। এরআগে সে কয়েকবার আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হয়ে জেলও খেটেছে। উজ্জলের মাদক ব্যবসা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে অতিষ্ঠ হয়ে এরআগে ঈশান গেপালপুর ও বসন্তপুর ইউনিয়নের জনগণ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, এলজিআরডি মন্ত্রণালয়, পুলিশের মহা-পরিদর্শক (আইজিপি) এবং রাজবাড়ী ও ফরিদপুরের পুলিশ সুপার বরাবর তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু, প্রশাসন উজ্জলের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় হয়তোবা জনগণ ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে মারপিট করেছে। মারপিটের পর তাকে ফরিদপুরের কোতয়ালী থানা পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

কোতয়ালী থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এস আই) মাসুদ আল ফারুক রানা বলেন, গণপিটুনির পর স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের ডিগ্রীচর বারোখাদা গ্রাম থেকে উজ্জলকে আটক করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি পুলিশি হেফাজতে সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

উজ্জলের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের বিষয়ে জানতে চাইলে র‌্যাব-৮ ফরিদপুর ক্যাম্পের দুই নম্বর কোম্পানীর অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রইছ উদ্দিন বলেন, র‌্যাবের কাছে উজ্জল সরকারের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অভিযোগ রয়েছে।

রাজবাড়ী সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) খান বেল্লাল হোসেন বলেন, উজ্জলকে গণপিটুনির ঘটনায় তার বাবা নিতাই সরকার বাদী হয়ে শুক্রবার (২৬ মে)  রাজবাড়ী থানায় চার জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।


এই নিউজটি 1913 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments

Developed by: Tech-Loge

x