লাশ নিয়ে ফেরার পথে লাশ হলেন একই পরিবারের ৩ জন

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১০:০০ অপরাহ্ণ ,২৮ জুন, ২০১৭ | আপডেট: ১:৪৯ পূর্বাহ্ণ ,২৯ জুন, ২০১৭
পিকচার

ফকীর আশিকুর রহমান, নিউজরুম এডিটর॥ ঢাকা থেকে লাশ নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে অ্যাম্বুলেন্স নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে নিহত হয়েছেন রাজবাড়ী জেলা সদরের শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়নের একই পরিবারের তিনজন। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন ওই পরিবারের আরও পাঁচজন।

বুধবার (২৮ জুন) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ধামরাই উপজেলার বাথুলী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন- শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়নের ধুলদী জয়পুর গ্রামের শুকুর সরদারের ছোটভাই মোস্তফা সরদার (৩৫), আরেক ছোটভাই বাচ্চু সরদারের স্ত্রী সেলিনা বেগম (২৮) ও ভায়রা মাইনদ্দিন শেখের ছেলে শফি শেখ (২৮)।

আহতরা হলেন- শুকুরের স্ত্রী সাফিয়া বেগম (৩৮), ভাই বাচ্চু সরদার (৩৮), জামাতা নাছির (২৪), শ্যালক বাবু (৩০) ও ভাতিজা মাহিম (২)। এদের সবাইকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিকেলে সাড়ে ৫টার দিকে নিহতদের মরদেহ শুকুর সরদারের বাড়িতে আনার পর সেখানে গিয়ে দেখা যায়, পরিবারের সদস্যদের আহাজারিতে আকাশ বাতাস ভারি হয়ে উঠেছে। এলাকার শত শত মানুষ ওই বাড়িতে ভিড় জমিয়েছেন।

এসময় শুকুর সরদার  জানান, তার ছেলে রাসেল (১৪) দির্ঘদিন ধরে জন্ডিসে ভুগছিলো। দুই দিন আগে রাসেল বেশি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার (২৮ জুন) ভোরে সেখানে রাসেলের অবস্থা গুরুতর হলে ডাক্তাররা তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। সকালে অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ঢাকায় নেওয়া হচ্ছিলো। ওই অ্যাম্বুলেন্সে রাসেলের সাথে শুকুরের পরিবারের আটজন সদস্য হাসপাতালে যাচ্ছিলেন। সকাল ১০টার দিকে অ্যাম্বুলেন্সটি ধামরাই এলাকা পার হলে রাসেল মারা যান।

পরে সেখান থেকে ওই অ্যাম্বুলেন্সে করেই রাসেলের লাশ নিয়ে সবাই বাড়িতে ফেরত চলে আসছিলেন। সাড়ে ১০টার দিকে অ্যাম্বুলেন্সটি ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ধামরাই উপজেলার বাথুলী এলাকায় এলে চালক নিয়ন্ত্রণ হারায়। এসময় অ্যাম্বুলেন্সটি রাস্তার পাশে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ঘটনাস্থলেই সেলিনা, শফি ও অ্যাম্বুলেন্সের চালক মারা যান এবং আহত হন ছয়জন। পরে স্থানীয় পুলিশ আহত ছয়জনকে উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠায়। সেখান থেকে আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনার পথে মোস্তফা মারা যান। আহত বাকি পাঁচজনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দুর্ঘটনায় নিহত অ্যাম্বুলেন্স চালকের নাম রহিম ভুঁইয়া (২৮)। তিনি ঢাকার নবাবগঞ্জ থানার দৌলতপুর গ্রামের রউফের ছেলে।


এই নিউজটি 5571 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments

Developed by: Tech-Loge

x