রাজবাড়ীতে বিএনপির ঈদ পুণর্মিলনী অনুষ্ঠিত

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১২:২১ পূর্বাহ্ণ ,১ জুলাই, ২০১৭ | আপডেট: ১:৪৫ পূর্বাহ্ণ ,১ জুলাই, ২০১৭
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ীতে জেলা বিএনপির ‘খালেক-হারুন’ গ্রুপের নেতা-কর্মীদের ঈদ পুণর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (৩০ জুন) সন্ধ্যায় শহরের রেল স্টেশন এলাকায় জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট এম.এ খালেকের চেম্বার ভবনে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট এম.এ খালেক, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হারুন-অর-রশিদ, সহ-সভাপতি তোফাজ্জেল হোসেন মিয়া, জেলা বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট কে.এ বারী কুটিন, কোষাধ্যক্ষ রইচ উদ্দিন ডিউক, যুক্তরাজ্য ছাত্রদলের সাবেক সহ-সভাপতি এম. এ. খালেদ পাভেল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি গোলাম কাশেম, জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি আমিনুল ইসলাম ঝন্টু ও আব্দুল মালেক বক্তব্য রাখেন।

এসময় জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম পিন্টু ও জেলা জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম ৭১’র সভাপতি খোন্দকার নূরুল নেওয়াজ, বাংলা কলেজ ছাত্রদলের সহ-সভাপতি আনিসুর রহমান, ছাত্রদল নেতা অ্যাডভোকেট ফরিদুল ইসলাম মাহাদীসহ জেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের অন্যান্য নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট এম.এ খালেক তার বক্তব্যে বলেন, বর্তমানে দেশে গণতন্ত্র নেই, সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা নেই। হত্যা, গুম, লুটপাট, নির্যাতন, অস্ত্রবাজী, গ্রেফতার বাণিজ্যসহ চরম নৈরাজ্যকর পরিস্থিতিতে আমরা বসবাস করছি। এই ফ্যাসিবাদী সরকারের অপশাসনের বিরুদ্ধে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। যে কোন মূল্যে এই অবৈধ সরকারকে উতখাৎ করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারুণ্যের অহংকার দেশনায়ক তারেক রহমানের নেতৃত্বে দুর্বার গণআন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের দলের মধ্যে ওয়ান ইলেভেনের ষড়যন্ত্রকারীরা এখনো সক্রিয় রয়েছে। নেতৃত্ব কুক্ষিগত করে রেখেছে। তারা দলের সুসময়ে দলীয় সুবিধা ভোগ করে টাকার পাহাড় গড়েছে, কিন্তু ওয়ান ইলেভেন সময় দলের সঙ্গে বেইমানী করেছে। তাদের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে।

 বিশিষ্ট আইনজীবি অ্যাডভোকেট এম.এ খালেক আরও বলেন, জাতীয় নির্বাচনে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া যাকে যোগ্য মনে করে মনোনয়ন দিবেন আমরা সবাই তাকে বিজয়ী করার লক্ষ্যে মাঠে নেমে কাজ করবো। কিন্তু, দেশনেত্রীর কাছে আমার অনুরোধ- সংগঠনের দায়িত্বটা আপনি প্রকৃত ত্যাগী নেতা-কর্মীদের হাতে দিবেন। এতে দল আরও সু-সংগঠিত হবে।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হারুন-অর-রশিদ বলেন,আজ আমরা জাতীয়তাবাদী শক্তির সবাই একত্রিত হয়েছি। আমাদের দলের মধ্যে দু’টি গ্রুপিং রয়েছে। একটি হলো জিয়াউর রহমানের আদর্শের গ্রুপ, অপরটি হলো বিএনপিকে ধ্বংস করার চক্রান্তকারী গ্রুপ। আমরা জিয়াউর রহমানের আদর্শের সৈনিক । দলকে ধ্বংস করার চাক্রান্তকারী গ্রুপের হাত থেকে আমাদের দলকে রক্ষা করতে হবে। আশাকরছি আগামী জুলাই মাসের পর পরই জেলা বিএনপির কমিটি গঠন হবে। আমাদেরই জয় হবে ইন শা আল্লাহ্।

Comments

comments


এই নিউজটি 1099 বার পড়া হয়েছে
[fbcomments"]

More News from রাজনীতি