৩০ মিনিটের নদী পারে সময় লাগছে ১ ঘন্টা

|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১১:০৩ অপরাহ্ণ ,১৪ জুলাই, ২০১৭ | আপডেট: ১১:০৪ অপরাহ্ণ ,১৪ জুলাই, ২০১৭
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া পয়েন্টে পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে প্রচণ্ড স্রোত বয়ে চলেছে। ফলে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি পারাপারে দ্বিগুণ সময় লাগায় যানবাহনের দীর্ঘ লাইন সৃষ্টি হয়েছে।

এছাড়া দৌলতদিয়া দুই নম্বর ফেরি ঘাটের র‌্যাম্প বেজ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় তিনদিন ধরে সেটি বন্ধ রয়েছে। ফলে শুক্রবার (১৪ জুলাই) দুপুর থেকে দৌলতদিয়া ঘাট প্রান্তে যানবাহনের এ দীর্ঘ লাইন সৃষ্টি হয়।

ঘণ্টার পর ঘণ্টা সিরিয়ালে আটকে থেকে চরম ভোগান্তি পেহাতে হচ্ছে ঢাকামুখী যাত্রীদের। বিশেষ করে নারী, শিশু ও বৃদ্ধ যাত্রীরা পড়েছেন চরম বিপাকে।

দৌলতদিয়া ঘাটে সিরিয়ালে আটকে থাকা সাতক্ষীরার যাত্রী মো. ফয়সাল হোসেন বলেন, জীবিকার তাগিদে ঢাকায় চাকরি করি। ছুটিতে গ্রামের বাড়ি বেড়াতে গিয়েছিলাম। কিন্তু ফেরার পথে এখানে এসে আটকে পড়েছি। দুই ঘণ্টা ধরে সিরিয়ালে রয়েছি ফেরিতে ওঠার জন্য। আরো কতোক্ষণ বসে থাকতে হবে আল্লাহ জানেন।

ঘাটে অপেক্ষমান কলা বোঝাই ট্রাক চালক জসিম উদ্দিন বলেন, সকালে যশোর থেকে ট্রাক নিয়ে দৌলতদিয়া ঘাটে এসে ফেরির অপেক্ষায় বসে আছি। খোরাকির টাকা ফুরিয়ে যাচ্ছে। সময় মত ঢাকায় পৌঁছাতে না পারলে লোকসান হবে।

সন্ধ্যা ৭টায় বিআইডব্লিউটিসি’র দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, স্বাভাবিক সময়ে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি পার হতে সময় লাগে আধা ঘণ্টা। কিন্তু পদ্মা নদীতে প্রবল স্রোতের কারণে এখন একেকটি ফেরি পার হতে এক ঘণ্টারও বেশি সময় লাগছে। তিনি আরও বলেন, গত মঙ্গলবার থেকে দুই নম্বর ফেরি ঘাটটি বন্ধ রয়েছে। পানি বৃদ্ধির কারণে তিন নম্বর ঘাট দিয়ে যানবাহন ওঠা নামায় একটু সমস্যা হলেও সেটি সচল রয়েছে। ঘাট প্রান্তে ১শ’ যাত্রীবাহী বাস ও ৩শ’ পণ্যবাহী ট্রাক ফেরিতে ওঠার জন্য সিরিয়ালে রয়েছে। সিরিয়াল মোতাবেক যানবাহনগুলো পারাপারে ১৫টি ফেরি চলাচল করছে।

বিআইডব্লিইটিএ দৌলতদিয়া ঘাট শাখার সহকারী প্রকৌশলী শাহ আলম বলেন, দুই নম্বর ঘাটের পন্টুনের র‌্যাম্প ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় ঘাটটি সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ রয়েছে। অন্যদিকে পানি বৃদ্ধি ও তীব্র স্রোতের কারণে তিন নম্বর ঘাটের এপ্রোচ সড়ক পানিতে তলিয়ে গেছে। যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রাখতে সেখানে ইট-বালু ফেলে কোন রকম সচল রাখা হয়েছে। দুই নম্বর ঘাটটির মেরামত কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে।

রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার সালমা বেগম বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে ফেরি চলাচলে দ্বিগুণ সময় লাগায় ঘাটে যানবাহনের দীর্ঘ সিরিয়াল সৃষ্টি হয়েছে। নদী পারের অপেক্ষমান যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে সেখানে পুলিশ সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করছে।

রাজবাড়ী নিউজ২৪.কম/ আশিক


এই নিউজটি 1351 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments

Developed by: Tech-Loge

x