‘কেকেএস’- এর পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান ও বৃক্ষরোপন কর্মসূচী

কাজী তানভীর মাহমুদ|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১০:২৩ অপরাহ্ণ ,২৯ আগস্ট, ২০১৭ | আপডেট: ১০:২৩ অপরাহ্ণ ,২৯ আগস্ট, ২০১৭
পিকচার

রাজবাড়ীতে বেসরকারী এনজিও কর্মজীবী কল্যাণ সংস্থা (কেকেএস) সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া কর্মসূচীর আয়োজনে এবং পল্লী কর্ম-সহায়ক (পিকেএসএফ)-এর সহযোগিতায় স্থানীয় শেরে বাংলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন অভিযান ও বৃক্ষরোপন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 সোমবার (২৮ আগস্ট) সকালে শেরে বাংলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন,জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কেকেএস- এর নির্বাহী পরিচালক বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার।

এ সময় অনান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- শেরে বাংলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম সহ অনান্য শিক্ষকমন্ডলী।  এই পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান ও বৃক্ষরোপন আয়োজনে স্কুলের ৫০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রধান অতিথি তার উদ্বোধনী বক্তব্যে শিক্ষার্থীদেরকে ক্লাসরুম ও স্কুল পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য পরামর্শ দেন। তিনি আরও বলেন, কেকেএস সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া কর্মসূচীর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে শিশু কিশোর ও তরুণদের মননশীল ও সুকুমার বৃত্তির উন্নয়ন, সুসংস্কৃতি, প্রগতিশীলতা, ইতিবাচক ও উন্নত মূল্যবোধ, অধ্যবসায়, নিষ্ঠা ও নিয়মানুবর্তিতা শিক্ষা, সামাজিক চুক্তিসমূহের প্রতি সম্মান ও শ্রদ্ধাবোধ সৃষ্টি করা।

তিনি আরও বলেন, এই কর্মসূচী রাজবাড়ী জেলার ৫ উপজেলার তৃণমূল পর্যায় বিভিন্ন স্কুল কলেজ, ক্লাব, সাংস্কৃতিক সংগঠনের সহযোগিতায় সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া, সম্মাননা এবং মেলায় এসব বিষয়ের উপর বছরব্যাপী নিয়মিত কার্যক্রম পরিচালনা করে যাবে। আমরা রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন ঐতিহ্য, সংস্কৃতি এই কর্মসূচির মধ্য দিয়ে নতুন করে পরিচিতি ঘটাবো। সেই সাথে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে শিশুদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে নিয়মিত মুক্তিযুদ্ধের তথ্যচিত্র প্রদর্শনী করে যাবো।

তিনি কর্মসূচী টি বাস্তবায়নের জন্যে এ জেলার সর্বস্তরের সুধীজন, সরকারী-বেসরকারী সংগঠনের সহযোগিতা কামনা করেন। পরে প্রতিটা ক্লাসে পরিচ্ছন্নতার জন্য একটি করে ডাস্টবিন ঝুড়ি প্রদান করা হয়। সেইসাথে বিদ্যালয়ের আঙ্গিণায় বৃক্ষ রোপন করা হয়। পাশাপাশি স্কুল চত্ত্বর এবং রাজবাড়ী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারসহ আশেপাশের এলাকায় ৫০টি ফলজ, বনজ এবং ঔষুধি গাছ রোপন করা হয়।


এই নিউজটি 202 বার পড়া হয়েছে

Comments

comments

Developed by: Tech-Loge