গোয়ালন্দে ৩০০ টি পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টার|রাজবাড়ী নিউজ24

প্রকাশিত: ১:১৪ পূর্বাহ্ণ ,৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ | আপডেট: ১:১৬ পূর্বাহ্ণ ,৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
পিকচার

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ী জেলা ভিত্তিক ফেসবুক পেইজ ‘আমরা রাজবাড়ীর সন্তান (Amra Rajbarir Sontan)’ এবং সেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘ভলেন্টিয়ার ফর রাজবাড়ী’-এর উদ্যোগে গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের অন্তার মোড় এলাকায় বন্যা কবলিত ৩০০ টি পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে।

শুক্রবার (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ওই এলাকায় ঘুরে ঘুরে এ ত্রাণ বিতরণ করা হয়।

এ সময় সেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘ভলেন্টিয়ার ফর রাজবাড়ী’- এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এবং রাজবাড়ী জেলার প্রথম অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘রাজবাড়ী নিউজ২৪.কম’-এর সম্পাদক এম.এ খালেদ পাভেল, রাজবাড়ীর দৈনিক মাতৃকন্ঠ পত্রিকার বার্তা সম্পাদক মো. শিহাবুর রহমান, রাজবাড়ী নিউজ২৪.কম-এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এম.এ তারেক পলিন, ‘আমরা রাজবাড়ীর সন্তান’ ফেসবুক পেইজের প্রতিষ্ঠাতা চীফ অ্যাডমিন মো. শামীম হাসান, রাজবাড়ী নিউজ২৪.কম- এর বার্তা সম্পাদক ও বাংলানিউজের রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি মো. আশিকুর রহমান, ভলেন্টিয়ার ফর রাজবাড়ী-এর সদস্য ফেরদৌস হাসান রাতুল, খোকন, আনিসুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘ভলেনটিয়ার ফর রাজবাড়ী’- এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এম.এ খালেদ পাভেল বলেন, অসহায় ও দু:স্থ মানুষের বিপদে-আপদে সহযোগীতা করার জন্য ২০১২ সালে আমি একদল তরুণদের সঙ্গে নিয়ে ‘ভলেনটিয়ার ফর রাজবাড়ী’ প্রতিষ্ঠা করি। প্রতিষ্ঠার পর থেকে প্রতিবছর ঈদে, শীতে এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগে আমরা দু:স্থদের মধ্যে খাদ্য ও বস্ত্র বিতরণ করে আসছি। এবারও আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে বন্যার্তদের পাশে দাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়। কিন্তু, এরমধ্যে জানতে পারি- ‌‘আমরা রাজবাড়ীর সন্তান’ পেইজের পক্ষ থেকেও একই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পরে আমি ওই পেইজটির অ্যাডমিন আমার আদরের ছোটভাই শামীম হাসানের সঙ্গে কথা বলে একসঙ্গে কাজ করার উদ্যোগ নিই। তারই ধারাবাহিকায় আমরা বন্যার্তদের মধ্যে এ ত্রাণ বিতরণ করলাম।

তিনি আরও বলেন, ‘ভলেনটিয়ার ফর রাজবাড়ী’- প্রতিষ্ঠার পর রাজবাড়ীতে আরও কয়েকটি সেচ্ছাসেবী সংগঠন প্রতিষ্ঠা হয়েছে। তাদের কার্যক্রম দেখে আমি খুবই আনন্দিত। আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে আমি তাদের সাধুবাদ জানাই। প্রকৃতপক্ষে আমরা সবাই মানবতার জন্য কাজ করছি। মানবতার জয় হোক।

‘আমরা রাজবাড়ীর সন্তান’ ফেসবুক পেইজের প্রতিষ্ঠাতা চীফ অ্যাডমিন মো. শামীম হাসান বলেন, দেশ ও দেশের বাইরে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা রাজবাড়ীর সন্তানদের একত্রিত করার লক্ষ্যে ২০১২ সালে আমি এ ফেসবুক পেইজটি চালু করি। হাটি হাটি পাঁ পাঁ করে পেইজটিতে আজ প্রায় ১৬ হাজার রাজবাড়ীর সন্তানদের একত্রিত করতে পেরেছি। ইতিমধ্যে এ পেইজের বিভিন্ন পোস্টের মাধ্যমে রাজবাড়ীর অসহায়-দরিদ্র মানুষের চালচিত্র তুলে ধরার ফলে তারা বিভিন্ন  সহযোগীতা পেয়েছেন। তারই ধারাবাহিকতায় গত ১৮ই আগস্ট থেকে রাজবাড়ীর বন্যার্তদের সহযোগীতা করার জন্য পেইজটিতে ইভেন্ট খোলা হয়। সেটি দেখে মাত্র  কয়েকদিনে রাজবাড়ীর সন্তানেরা প্রায় ৫০ হাজার টাকা সহযোগীতা করেছেন, যা কিনা প্রথমে আমি চিন্তাও করতে পারিনি। এ টাকা দিয়ে সেমাই, চিনি, কিসমিস ও দুধ কিনে মোট ৪৫০ টি বন্যার্ত পরিবারের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের পেইজের সঙ্গে সম্মিলিত হয়ে সার্বিক সহযোগীতা করেছে রাজবাড়ী জেলার সেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘ভলেনটিয়ার ফর রাজবাড়ী’। এ সংগঠটির সঙ্গে জড়িত সকল সদস্যসহ বন্যার্তদের সহযোগীতায় যারা এগিয়ে এসেছেন তাদের সকলের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

উল্লেখ্য, এর আগে বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) ‘আমরা রাজবাড়ীর সন্তান (Amra Rajbarir Sontan)’ এবং  ‘ভলেন্টিয়ার ফর রাজবাড়ী’-এর উদ্যোগে কালুখালী উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের গতমপুর গ্রামে বন্যা কবলিত ১৫০টি পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করা হয়।

Comments

comments


এই নিউজটি 362 বার পড়া হয়েছে
[fbcomments"]