,

গোয়ালন্দে বিরল প্রজাতির ঈগল পাখি উদ্ধার

News

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলায় বিরল প্রজাতির বড় আকৃতির একটি আহত ঈগল পাখি উদ্ধার করেছেন সানোয়ার আহমেদ সানু (৩৬) নামে এক ব্যক্তি। পাখিটিকে নিজ বাড়িতে রেখে চিকিৎসা করিয়ে সুস্থ্য করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

সানু উপজেলার উজানচর ইউনিয়নের রমজান মাতুব্বার পাড়ার মঞ্জুর আহমেদের ছেলে।

সানোয়ার আহমেদ সানু বলেন, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে পাখিটিকে আমাদের বাড়ির একটি গাছের নিচু ডালে বসে থাকতে দেখি। এসময় এলাকার কিছু শিশু-কিশোররা পাখিটিকে লক্ষ্য করে ঢিল ছুঁড়ছিল। তখন আমি শিশুদের ধমক দিয়ে সেখান থেকে তাড়িয়ে দিই। কিন্তু পরদিন শুক্রবার সকালেও আমি পাখিটিকে একই স্থানে বসে থাকতে দেখে পাখিটির কাছে গিয়ে একটি ডানায় আঘাতের চিহ্নসহ আহত অবস্থায় দেখতে পাই। এরপর আমি পাখিটিকে উদ্ধার করে খাওয়ানো চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে দ্রুত পাখিটিকে গোয়ালন্দ পশু হাসপাতালে নিয়ে যাই।  সেখানকার প্রাণী চিকিৎসককে দেখিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পাখিটিকে পুনরায় বাড়িতে নিয়ে আসি।

তিনি আরও বলেন, রোববার দুপুরের দিকে পাখিটিকে উপজেলা প্রাণীসম্পদ কার্যালয়ে নেওয়া হয়। সেখানে তার অপরাশেন শেষে ব্যান্ডেজ করে দেওয়া হয়েছে। পাখিটি সুস্থ্য হলেই অবমুক্ত করে দেওয়া হবে।

গোয়ালন্দ উপজেলা উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা কাজী আলমগীর হোসেন বলেন, পাখিটি শিকারী ঈগল প্রজাতির বলে মনে হচ্ছে। বিরল প্রজাতির এই পাখি এখন আর তেমন একটা দেখা যায় না। এরা বিল এলাকায় মাছ খেয়ে জীবন ধারণ করে। খাবার ও বসবাসের পরিবেশ না থাকায় এই ঈগল প্রজাতির পাখিগুলো এখন বিলুপ্তির পথে।

তিনি আরও বলেন, পাখিটির ডানার একটি হাড় ভেঙ্গে গেছে। যে কারণে সে উড়তে পারছিলনা। সুস্থ্য হতে পাখিটির আরো ১৫-১৬দিন সময় লাগবে।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর