,

সর্বশেষ :
রাজবাড়ী জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন রাজবাড়ীর ২ টি আসনের জন্য বিএনপির মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন খালেক-আসলাম-হারুন সুষ্ঠু নির্বাচন হলে রাজবাড়ী-১ আসন পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হবো : অ্যাড. খালেক রাজবাড়ী-১ আসনে বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থী অ্যাড. আসলাম মিয়ার গণসংযোগ রাজবাড়ী-১ আসনের জন্য আ’লীগের মনোনয়ন ফরম নিলেন ইমদাদুল হক বিশ্বাস রাজবাড়ীতে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন রাজবাড়ীতে এসএসসি পরীক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম রাজবাড়ী-১ আসনের জন্য আ’লীগের মনোনয়ন ফরম নিলেন আশরাফুল ইসলাম রাজবাড়ী-১ আসনের জন্য জাতীয় পার্টির মনোনয়ন ফরম নিলেন মিল্টন প্রত্যেকটি মানুষের ঘরে শান্তি পৌঁছে দেওয়া হবে : রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার

সুরক্ষিত ফেসবুক চাইলে অ্যাপস ব্যবহার নয়

News

আম্তর্জাতিক ডেস্ক : :  আজকাল অনেক ফেসবুক ব্যবহারকারী টপ টেন ফ্রেন্ড বা এ জাতীয় ফেসবুক  অ্যাপস ব্যবহার করছেন। প্রোগ্রামিং জানা একজন ব্যবহারকারী চাইলেই অ্যাপস তৈরি করতে পারেন। এতে ব্যবহারকারীর কি লাভ হয় বিষয়টি আপেক্ষিক। তবে ডেভেলপারের মনোভাব ক্ষতির কারণ হতে পারে।

একটি অ্যাপস ব্যবহারের আগে ইউজারকে তার ওয়ালে পোস্ট, ফ্রেন্ডলিস্টসহ পারসোনাল সকল তথ্য এক্সেস করার অনুমতি দিতে হয়। কিছু অ্যাপস ম্যাসেজ পাঠাতেও সক্ষম। ফলাফল হিসেবে আইডি অরক্ষিত হয়ে পড়ে ও নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয়।

অ্যাপসগুলোর মাধ্যমে ডেভেলপাররা যে ব্যক্তিগত তথ্যগুলো সংগ্রহ করে তা তারা বিভিন্ন মার্কেটিং কোম্পানির কাছে প্রতি আইডি ৫ থেকে ৩০ ডলারে বিক্রয় করে। এছাড়াও ইমেইল এড্রেস কেনার অনেক প্রতিষ্ঠান আছে যারা ইমেইল মার্কেটিং করে।

আমরা অনেকেই বিভিন্ন ম্যাসেজ পেয়ে থাকি যেখানে একটি ইমেইল এড্রেসে যোগাযোগ করতে বলে। উদ্দেশ্য জবাব দিলে ইমেইল এড্রেসটি জানতে পারবে। এর মাধ্যমে প্রতারণার ফাঁদে ফেলার চেষ্টাও করা হয়।

আপনার ফেসবুক আইডিটি সুরক্ষিত রাখতে চাইলে অ্যাপস ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে পারেন। প্রাইভেসি সেটিংসে এ্যাপস ডিসেবল করার অপশন আছে।

ফাঁস হয়ে যেতে পারে   সকল ব্যক্তিগত   তথ্য সমূহ : 

আপনি কি জানেন, ফেসবুক অ্যাপস-এর মাধ্যমে আমাদের অনেক তথ্য চলে যাচ্ছে বিজ্ঞাপন সংস্থা বা অন্য ব্যক্তির কাছে!

ফেসবুক ব্যবহারকারীরা তার প্রোফাইলে নিজের ব্যক্তিগত নানা তথ্য, পছন্দ, ফোন নম্বর দিয়ে থাকেন। এক্ষেত্রে অবশ্য ব্যবহারকারী তার নিজের ইচ্ছা মতো কে কে তার প্রোফাইল দেখতে পারবে সেটা সেটিংয়ের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে।

তবে আমরা ফেসবুকে অনেক সময় নানা গেম এবং অ্যাপস ব্যবহার করি মজা করার জন্য এবং অন্যকে অনুরোধ করি এটা ব্যবহারের জন্য। এসব অ্যাপস ব্যবহার করার সময়, আমরা আমাদের প্রোফাইল এবং ব্যক্তিগত তথ্য দেখার অনুমতি দেই। আমাদের অনুমতি নিয়েই এসব অ্যাপস আমাদের প্রোফাইল থেকে তথ্য সংগ্রহ করে বিভিন্ন মজার তথ্য দেয়।

কিন্তু কিছু কিছু চক্র আছে যারা এই সব অ্যাপস এর মাধ্যমে আমাদের প্রোফাইলে প্রবেশ করে সকল তথ্য সংগ্রহ করে বিভিন্ন বিজ্ঞাপনি সংস্থার কাছে বিক্রয় করে। যা আপনার জন্য বিব্রতকর। বিশেষ করে তারকাখ্যাত এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জন্য এটা বেশি হয়ে থাকে। এক কথায় বলতে গেলে এটা হতে পারে হ্যকারদের পাতা ফাঁদ!

ফেসবুকে ‘কে আপনাকে পছন্দ করে?’, ‘কে আপনাকে ভালোবাসে?’ এই রকম অনেক অ্যাপস আছে যা আপনার ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহের জন্য আপনার প্রোফাইলে প্রবেশের অনুমতি চায় এবং আপনিও অনুমতি দেন। ওই অ্যাপস, আপনি যে ব্যক্তির সাথে সব থেকে বেশি চ্যাট করেছেন কিংবা যার প্রোফাইলে আপনি বেশি নজরদারি, লাইক বা কমেন্টস করেন তাদের সাথে আপনাকে লিংক করে দেয়। অর্থাৎ এই অ্যাপস আপনার ব্যক্তিগত ইনফরমেশনে প্রবেশ করে।

তবে কেউ চায় না তার ব্যক্তিগত তথ্য অন্য কেউ জানুক। অতএব কিভাবে আপনি এসব অ্যাপস নিয়ন্ত্রণ করবেন এবং ব্লক করবেন সে বিষয়ে কিছু তথ্য দেওয়া হলো।

প্রথমে ফেসবুক অ্যাকাউন্টের সেটিং অপশনে যান।
এরপর অ্যাপস অংশে ক্লিক করুন এবং শো অল অ্যাপস-এ ক্লিক করুন। এখানে আপনি যে যে অ্যাপস ব্যবহার করেছেন সেগুলো দেখতে পাবেন।
লক্ষ্য করলে দেখবেন, প্রত্যেকটি অ্যাপস এর ডানদিকে এডিট এবং একটি ক্রস চিহ্ন রয়েছে। এখান থেকে অ্যাপসটি ডিলেট অথবা এডিট করতে পারবেন। আপনি যদি এডিট করতে চান তাহলে এডিট এ ক্লিক করলে দেখতে পাবেন ওই নির্দিষ্ট অ্যাপস আপনার কী ধরণের ব্যক্তিগত তথ্যে প্রবেশ করতে পারে। অর্থাৎ এই অ্যাপস শুধুই লাইক বা ইন্টারেস্ট বিষয়ক তথ্য নিচ্ছে নাকি আপনার বেসিক ইনফরমেশান ও আপনার ব্যবহৃত ই-মেইল এড্রেস সংগ্রহ করছে সেটা দেখতে পারবে।
বেসিক ইনফরমেশন সংগ্রহ করা মানে আপনার সকল বিষয়ে এই অ্যাপস প্রবেশের অনুমুতি পেয়েছে। অর্থাৎ আপনার ফেসবুকের ব্যক্তিগত তথ্য, চ্যাট, ফোন নম্বরসহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রবেশ করতে পারে। এমন কোনো অ্যাপস যদি আপনার ফেসবুকে থাকে তাহলে রিমুভ অ্যাপ অংশে ক্লিক করে সেই অ্যাপসটি ডিলেট করাই ভালো।
আপনি যদি মনে করেন যে এই অ্যাপস আপনার কোনো সমস্যা তৈরি করছে না এবং আপনি ব্যবহার করতে চান তবে তা সেভাবেই রেখে দিন।
এই পদক্ষেপগুলো অনুসরণ করলে আশা করি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তার পাশাপাশি ব্যক্তিগত তথ্যও নিরাপদে থাকবে।

প্রকাশ: ২৩ এপ্রিল ২০১৪/সকাল-৫.৪৩ / স্বপ্ন

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর