,

মাটিপাড়া কাজী ছমির উদ্দিন বিদ্যালয় ও বেথুলিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় পাঠ্যপুস্তক বিতরণ

News
মাটিপাড়া কাজী ছমির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন পাঠ্যপুস্তক তুলে দেওয়া হয়। ছবি- কাজী তানভীর মাহমুদ।

রাজবাড়ী সদর : রাজবাড়ী জেলা সদরের সদরের মাটিপাড়া কাজী ছমির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় ও বেথুলিয়া বিএস ফাজিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনামূল্যে ২০১৮ শিক্ষাবর্ষের পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করা হয়েছে।

সোমবার (১ জানুয়ারি) স্ব স্ব বিদ্যালয় মাঠে এ পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করা হয়।

মাটিপাড়া কাজী ছমির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন পাঠ্যপুস্তক তুলে দেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও রাজবাড়ী সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. রমজান আলী খান।

এ সময় অনান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- মাটিপাড়া কাজী ছমির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খোন্দকার ফিরোজ আহমেদ, রামকান্তপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আবুল হাসেম বিশ্বাস, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব খোরশেদ আলম মিয়া, রামকান্তপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন মোল্লা, বেথুলিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শাহ জাহান গাজী।

নতুন পাঠ্যপুস্তক হাতে পেয়ে উচ্ছসিত হয়ে শিক্ষকদের সঙ্গে ফটোসেশন করেন বেথুলিয়া বিএস ফাজিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা। ছবি- কাজী তানভীর মাহমুদ।

অপরদিকে, বেথুলিয়া বিএস ফাজিল মাদ্রাসায় শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন পাঠ্যপুস্তক তুলে দেন মাদ্রাসার অধ্যক্ষ খোন্দকার মো. আব্দুল লতিফ।

এ সময় অনান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বেথুলিয়া বিএস ফাজিল মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ খোন্দকার আব্দুল মান্নান, প্রভাষক মো. ইকবাল জুম্মা চৌধুরী, শেখ মো. মতিয়ার রহমান, মো. লুৎফর রহমান, রেজাউল করিম, মামুনুর রশীদ, গোলাম আজম, মাওলানা মো. রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

মাটিপাড়া বেথুলিয়া বিএস ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ খোন্দকার মো. আব্দুল লতিফ জানান, বিগত বছরের সব দুঃখ ব্যর্থতা ভুলে গিয়ে ২০১৮ সালের নতুন বছরের নতুন বই পেয়ে শিক্ষার্থীরা পড়ালেখায় আরও মনোযোগী হবে। শিক্ষার্থীরা বছরের প্রথম দিনে নতুন বই পেয়ে অনেক খুশি।অভিভাবকরা ও অনেক খুশি সন্তানের হাতে নতুন বই দেখে। ভালোভাবে লেখাপড়া করে কোমলমতি ছাত্র ছাত্রীরা মানুষের মত মানুষ হয়ে দেশ ও জাতি গঠনে নিজেদের কে আত্মনিয়োগ করবে এই হোক প্রত্যাশা।

মাদ্রাসার ২৫৭ জন শিক্ষার্থীর মাঝে তিন হাজার ২৭০টি বই দেওয়া হয়েছে বলে জানান অধ্যক্ষ খোন্দকার মো. আব্দুল লতিফ।

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর