,

বালিয়াকান্দিতে প্রেমিকা ও তার বোনকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় মানববন্ধন

News

বালিয়াকান্দি : রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলায় প্রেমিকা ও তার ছোটবোনকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় স্কুলছাত্র আলাউদ্দিন সরদারের (১৬) দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১ টায় উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আয়োজনে বিদ্যালয়ের সামনে কোলারহাট-জামালপুর সড়কে ঘন্টাব্যাপি এ কর্মসূচি পালিত হয়। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকসহ স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ অংশ নেন।

মানববন্ধনে- নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুস সালাম, ব্যাবস্থাপনা কমিটির সভাপত আব্দুল জলিল, সিনিয়র শিক্ষক আলী আকবর শেখ, নটাপাড়া সরকারী প্রথামিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শুসান্ত কুমার রায়, নটাপাড়া আবু জাফর সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মোহম্মদ আবু হানিফ, সভপতি আব্দুর রউফ শেখ, নটাপাড়া বাজার সমিতির সভাপতি আনারুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

বক্তারা, নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জামেলা খাতুন ওরফে আছিয়া (১৬) ও তার ছোটবোন হাসনা হেনার (১৫) ওপর হামলাকারী আলাউদ্দিন সরদারের (১৬) দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (০২ জানুয়ারি) রাত ৯টার দিকে বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের খামার মাগুরা গ্রামে প্রেমের সম্পর্কে টানপোড়নের জেরে প্রেমিকা আছিয়া ও তার ছোটবোন হাসনা হেনাকে কুপিয়ে জখম করে পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে আলাউদ্দিন সরদার। এরপর গুরুতর আহত অবস্থায় আছিয়া ও তার বোনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন পরিবারের লোকজন। এ ঘটনায় বুধবার (০৩ জানুয়ারি) দুপুরে আলাউদ্দিনের বিরুদ্ধে বালিয়াকান্দি থানায় মামলা দায়ের করেন দুই স্কুল ছাত্রীর বাবা।

আলাউদ্দিন খামার মাগুরা গ্রামের মুক্তার সরদারের ছেলে। তার প্রেমিকা জামেলা খাতুন ওরফে আছিয়া (১৬) ও প্রেমিকার ছোটবোন হাসনা হেনা (১৫) একই গ্রামের রহমান মৃধার মেয়ে। তারা তিনজনই জামালপুর ইউনিয়নের নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে আলাউদ্দিন ও আছিয়া ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী ও হাসনা হেনা দশম শ্রেণির ছাত্রী।

রাজবাড়ী নিউজ২৪.কম/ আশিক

Comments

comments

     এ জাতীয় আরো খবর